দেশেই হবে ওয়াল্টন স্মার্টফোন ফ্যাক্টরি

৩জি মোবাইল নেটওয়ার্কিং দেশে চালু হতেই জ্যামিতিক হারে বাড়তেই আছে স্মার্টফোণের চাহিদা। এই চাহিদা মেটাতে বিশ্বের নামিদামি ব্র্যান্ডগুলোর সাথে দেশের বাজারে তীব্র প্রতিযোগিতা করেছে দেশীয় ব্র্যান্ডগুলোও।

চায়না থেকে আমদানিকৃত রিব্র্যান্ডেড এই স্মার্টফোন গুলোই সবার হাতে হাতে পৌছে দিয়েছে উন্নত প্রযুক্তি সেবা। কিন্তু আর চীন থেকে রিব্র্যান্ডেড ফোন আমদানি নয়, দেশেই হতে চলে স্মার্টফোন ম্যানুফেকচারিং ইন্ডাস্ট্রি!

স্মার্টফোন ফ্যাক্টরি হবে বাংলাদেশে walton (2)

এই সাহসী উদ্যোগটি নিচ্ছে জনপ্রিয় কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড ‘ওয়াল্টন’ সরকার থেকে কাচামাল আমাদয়ানির ব্যাপারে সহায়তা পেলে ২০১৭ সালের মধ্যেই ওয়ালটন বাংলাদেশেই বানাবে তাদের স্মার্টফোন।

ওয়ালটনগ্রুপের ডিরেক্টর জনাব এসএম মনজুরুল আলম অভি জানান,

“ইতিমধ্যেই ১৫০জন প্রকৌশলীকে রিক্রুট করা হয়েছে। তারা বর্তমানে স্মার্টফোনের কোয়ালিটি উন্নততর নিয়ে রিসার্চ করছেন।”

‘Lets make history together’ শ্লোগানে গাজীপুরে ওয়ালটন হাইটেক ফ্যাক্টরি তে হয়ে যাওয়া ‘walton mobile distributor congress-2016’ তে তিনি এই কথা জানান-

“প্রতিবছর ওয়ালটন মোবাইলের চাহিদা দ্বিগুন হারে বাড়ছে।”

তাই ওয়ালটন দেশেই মিড থেকে হাইরেঞ্জের স্মার্টফোন ও ট্যাব বানানোর পরিকল্পনা গ্রহন করেছে। ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ গঠনের প্রেরনা সামনে রেখে এই প্রজেক্টে সরকারের কাছে ‘পলিসি অ্যাসিসটেন্স’ দাবি করেছে ওয়ালটন।

জনাব এসএম মঞ্জুরুল আরো বলেন-

“ওয়ালটন প্রযুক্তি পন্য দেশে তৈরী করে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানি করে ইতিহাস তৈরী করতে বদ্ধ পরিকর।”

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন গ্রুপ চেয়ারম্যান এসএস নুরুল আলম রিজভী, ডিরেক্টর তাহমিনা আফরোজ, ইলিয়াস কাঞ্চন সহ আরো অনেকে।

এই প্রজেক্ট সফল হলে অচিরেই স্মার্টফোনের ‘মেড বাই বাংলাদেশ’ নয়, সগর্বে শোভা পাবে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’, এভাবেই ধাপে ধাপে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে ‘ডিজিটালাইজেশনের পথে।’

মাসউদ ইকবাল

আমি মাসউদ ইকবাল, টেকমাস্টারব্লগ কমিউনিটির একজন উপদেষ্টা। বাংলা ভাষায় প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েব কন্টেন্টের মানসম্মত এক সংগ্রহ তৈরীর লক্ষ্যে টেকমাস্টারব্লগের এই যাত্রায় আপনাকে স্বাগতম জানাচ্ছি। সাথে থাকুন।

আপনার মতামত ...