শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য ইউটিউবের ভিডিও সেবা!

বিশ্বব্যাপি ডিজিটাল পদ্ধতিতে শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নে এগিয়ে এসেছে জনপ্রিয় ও বৃহৎ ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউব। প্রযুক্তি জায়ান্ট গুগল মালিকানাধীন এই সাইটটি শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের তথা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রযুক্তি সহযোগি হিসেবে কাজ করবে। আলাদা চ্যানেল ও নেটওয়ার্কের মাধ্যমে শিক্ষা সহায়ক ভিডিও সরবরাহ করবে ইউটিউব। সম্প্রতি এমনই একটি ইউটিউব সংষ্করণ [www.youtube.com/schools] চালু করেছে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ।

গুগল জানিয়েছে জানিয়েছে, ইউটিউবের নতুন এই সংষ্করণে বিষয়ভিত্তিক ও বয়সানুসারে বিভিন্ন ভিডিওচিত্র থাকবে। বিশেষ করে যে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের যথাযথ বিষয়বস্তু না থাকায় ইউটিউব ব্যবহার বন্ধ করে দিয়েছে তাদের প্রতি বিশেষ নজর দেয়া হবে। প্রকল্প পরিচালক ব্রিয়ান ট্রাং একটি ব্লগস্পটে জানান, ‘আমরা শিক্ষকদের কাছ থেকে শুনেছি ইউটিউবের ব্যবহার সম্পর্কে জেনেছি। তারা শ্রেনীকক্ষে শিক্ষার্থীদের ব্যবহারিক জ্ঞান দিতে প্রচুর পরিমানে ইউটিউবের শিক্ষামূলক ভিডিও দেখাতে চান। কিন্তু শিক্ষার্থীরা সর্বশেষ মিউজিক ভিডিও দেখার প্রতি আগ্রহ দেখায় যেগুলো তাদের জন্য সহায়ক নয়। নতুন এ সেবাটির মাধ্যমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো নেটওয়ার্কিংয়ের মাধ্যমে শুধুমাত্র ইউটিউবের এডুকেশন সংস্করণ ‘ইউটিউব এডু’তে প্রবেশ ও ভিডিও দেখতে পারবেন। এছাড়া কিভাবে সাইটটি ব্যবহার করে শিক্ষার্থীদের আরো ভালো পাঠদান করানো যায় সেজন্য আরেকটি সহযোগি সাইট ‘ইউটিউব ফর টিচার’ চালু করা হয়েছে।
শিক্ষাবিষয়ক এসকল ভিডিও ম্যাচাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি [এমআইটি] এবং অলাভজনক পরামর্শ সেবাদাতা প্রতিষ্টান টেকনোলজি, এন্টারটেইনমেন্ট এন্ড ডিজাইন [টিইডি] সহায়তা করেছে। শিক্ষা প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ লেইন ম্যাকল্যারেন বলেন, ‘ভিডিও নির্ভর শিক্ষা শিক্ষার্থীদের ব্যাপকভাবে সহায়ত হবে। পড়ার চেয়ে এটি কার্যকরি হবে।