অ্যাপলের এ৯ চিপসেট

গত সেপ্টেম্বরে লঞ্চ হওয়া আইফোন ৬এস ও ৬এস প্লাসে ব্যবহার করা হয়েছে অ্যাপলের সর্বশেষ প্রযুক্তির এ৯ চিপসেট।  চিপসেটটির ডিজাইনার অ্যাপল হলেও নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হচ্ছে স্যামসাং ও টিএসএমসি। উল্লেখ্য যে অ্যাপলের এ৬, এ৭, এ৮ চিপসেটের নির্মাতা প্রতিষ্ঠানও স্যামসাং।  তবে এবারই স্যামসাং ব্যতীত কোন চিপ নির্মাতার চিপ ব্যবহার করলেন তাদের ডিভাইসে। প্রতিবারের মত এবারও অ্যাপল তাদের চিপ ডিজাইনে এনেছে নতুনত্ব।

অ্যাপলের এ৯ চিপসেট

এতে রয়েছে ৬৪ বিটের ১.৮৫ গিগাহার্জ  এআরএমভি৮-এ সিপিউ যার নামকরন করা হয়েছে টুইস্টার, সাথে র‍্যাম হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে লো পাওয়ারের ডাবল ডেটা রেট ভার্সন ৪ দুই জিবি। ডুয়েল কোর টুইস্টার প্রসেসরের প্রতিটি কোরে ডেটা ও নির্দেশনার জন্য রয়েছে এল১ ক্যাশ ৬৪ মেগাবাইট, ৩ মেগাবাইট এল২ শেয়ারড মেমোরি এবং ডিজিটাল-অ্যানালগ বা মিক্সেড সিগন্যালসহ রেডিও সিগন্যাল প্রসেসের প্রয়োজনে রয়েছে এল৩ চার মেগাবাইটের ক্যাশ যা ভিক্টিম ক্যাশ হিসেবেও অ্যাক্ট করে।

যুক্ত হয়েছে নতুন ইমেজ প্রসেসর, এম্বেড করা হয়েছে এম৯ মোশন কোপ্রসেসর। চিপসেটটি সিরির ভয়েস কমান্ডও বুঝতে সক্ষম।

apple-iphone-6s-processor

অ্যাপলের দাবি তাদের নতুন এ৯ চিপসেটটি আগের এ৮ চিপসেটটির তুলনায় ৭০% বেশি সিপিউ এবং ৯০% বেশি গ্রাফিকস পারফর্মেন্স দিতে সক্ষম। চিপসেটটি স্যামসাং Exynos 8890 এবং Qualcomm Snapdragon 820 মত পাওয়ারফুল।

 

মেহেদী হাসান পলাশ

Mehedi Hasan Polash ভালোবাসি প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে ও জানাতে, এই ভালো লাগা থেকেই যোগ দেওয়া প্রযুক্তি ব্লগিংয়ে। পাশে পেয়েছি টেকমাস্টার ব্লগ কমিউনিটি, দিকনির্দেশনা দিতে শ্রদ্ধেয় মেজবা উদ্দিন ভাই। ব্লগিং জগতের সবচেয়ে বড় যে পাওয়া তা হচ্ছে তথ্য, ব্লগিং এর জন্য প্রতিদিনই নিজেকে বেশি বেশি তথ্য জানতে হচ্ছে যা অনেকটা নেশার মত হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর জীবনটাই তো শেখার জন্য, জানার জন্য। বর্তমানে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম ও মার্কেটিং উভয় বিষয়ে (বিবিএ) অধ্যায়নরত। প্রয়োজনে যোগাযোগ ফেইসবুকে- মেহেদী হাসান গুগল প্লাস

আপনার মতামত ...