উবুন্টুর ব্যাশ শেলের মজা এখন উইন্ডোজ ১০ এ

microsoft_loves_linux_twitter

সত্য নাদেল্লার গত দুই বছরের রাজত্বে মাইক্রোসফট তার অনেক প্রতিদ্বন্দীদের সাথেই চুক্তি করেছে, একসাথে কাজ করার ফলে কম্পানিগুলো দ্রুত অনেক নতুন ফিচার তৈরী করতে পেরেছে ব্যাবহারকারীদের অনেক সুযোগ সুবিধা দিয়ে প্রতিযোগিতার বাজারে নিজের জায়গায় টিকে থেকেছে। সেরকম ই এক নতুন ফিচার নিয়ে গত বুধবার ঘোষনা দিলো মাইক্রোসফট। মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ১০এ লিনাক্সের উবুন্টূ ব্যবহারের  সুবিধা দিবে ব্যবহারকারীদের। এর ফলে লিনাক্সের মজা কিছুটা হলেও উইন্ডোজে উপভোগ করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। যা আসলে এক যুগান্তকারী সংবাদ ই বটে।

o92a2868 (1)

ক্যানোনিকাল প্রতিষ্ঠাতা মার্ক শাটলওয়ার্থ এক বিবৃতিতে বলেছেন “যথাসম্ভব বেশি মানুষের কাছে ফ্রি সফটওয়ার পৌছে দেওয়ার যাত্রায় আমরা এরকম কোনো পরিস্থিতির পূর্বাভাস কোনো সময়ই পাইনি । তবুও আমরা উবুন্টুর জন্য উইন্ডোজের পিছে দাড়াবো, নতুন এই আশ্চর্যজনক উপায়ে লিনাক্সকে সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিতে উইন্ডোজ ডেভলপারদের প্রয়োজনীয় সাপোর্ট করতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এর মাধ্যমে অপ্রত্যাশিত কোনো সম্ভাবনাও তৈরী হতে পারে।

maxresdefault (1)এর আগে জেড নিজের বরাত দিয়ে জানা যায় মাইক্রোসফট উবুন্টুর স্বত্তাধিকারী ক্যানোনিকাল কম্পানির সাথে এক চুক্তিতে আবদ্ধ হয় যার ফলাফল হিসেবে গত বুধবার মাইক্রোসফট ঘোষনা দেয় উইন্ডোজ ১০ এ উবুন্টু ব্যবহারের সুবিধা প্রদান করার।

তবে উইন্ডোজ ব্যবহারকারীরা একে ভার্চুয়াল মেশিনের মতো ব্যবহার করতে পারবেন না। ব্যবহারকারীকে উবুন্টুর ব্যাশ শেলকে সরাসরিভাবে উইন্ডোজে ব্যবহার করতে পারবেন ।মাইক্রোসফট এখনো উইন্ডোজের ডিফল্ট টার্মিনাল হিসেবে নিজের পাওয়ার শেল ব্যবহার করছে। তবে ব্যাশ শেল উইন্ডোজে আসলে ডেভলপাররা এখন তাদের .sr স্ক্রিপ্ট গুলো উইন্ডোজেই লিখতে বা বানাতে পারবেন। উইন্ডোজে সেগুলো লিনাক্সের সাবসিস্টেমের মতো করে চলবে।

 

উদয়

সবার মধ্যেই কিছু না কিছু থাকে,সেই কিছু খোজার প্রচেষ্টাতেই আছি। ভালো লাগে টেকনোলজি,তাই টেক-মাস্টারব্লগের সাথে সম্পৃক্ততা ।

আপনার মতামত ...