বিশ্ব ডাটা ব্যাকআপ দিবস

মানুষের দৈনন্দিন ভালো অভ্যাসগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে নিয়মিত প্রয়োজনীয় ডেটার ব্যাকআপ রাখা। প্রয়োজনীয় ডেটার ব্যাকআপ রাখতে কি খুব বেশি অর্থ বা প্রযুক্তির প্রয়োজন হয় যা আপনার হার্ডডিস্ক নষ্ট হয়ে গেলে ডেটার রিকভারি করতে লাগে? বা যে পরিমান ক্ষতির সম্মুখীন হন?

ব্যাকআপ দিবস

 

নিশ্চয়ই না বলবেন!

সব জানা সত্ত্বেও অবহেলা করে ব্যাকআপ নিচ্ছেন না। নিজের ডেটা আর অর্থ দুটোই বাঁচাতে চাইলে আর অপেক্ষা কেন ডেটার ব্যাকআপ নিতে। ডেটার ব্যাকআপ বিষয়ে গবেষণায় অনুদানকারী ক্লাউড ডেটা ব্যাকআপ সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান আক্রোনিক্সের গবেষণার ফলাফলে-

  • সারা বিশ্বের প্রতি ৩ জনের ১ জন ব্যাকআপ না নেওয়ার ফলে ডেটা লসে ভোগান্তির সম্মুখীন
  • তাদের মাঝে ১১% মানুষই ডেটা রিকভারিতে প্রতিজনে খুইয়েছেন প্রায় চল্লিশ হাজার (৪০,০০০) টাকা!
  • ৩৮ ভাগ মানুষ এখনও ডেটার ব্যাকআপ রাখতে এক্সটারনাল হার্ডড্রাইভের উপর এবং মাত্র ৩০ ভাগ ক্লাউডের উপর নির্ভরশীল

সারা বিশ্বজুড়ে পালিত হচ্ছে ব্যাকআপ দিবস। আগামী ১মে তারিখে হার্ডডিস্ক কিংবা মোবাইল মেমোরির ক্র্যাশ খেয়ে বোকা হতে না চাইলে বিশ্ব ব্যাকআপ দিবসেই আপনার কম্পিউটার, মোবাইল বা ক্যামেরার ব্যাকআপ নিয়ে নিন এখনই।

মেহেদী হাসান পলাশ

Mehedi Hasan Polash ভালোবাসি প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে ও জানাতে, এই ভালো লাগা থেকেই যোগ দেওয়া প্রযুক্তি ব্লগিংয়ে। পাশে পেয়েছি টেকমাস্টার ব্লগ কমিউনিটি, দিকনির্দেশনা দিতে শ্রদ্ধেয় মেজবা উদ্দিন ভাই। ব্লগিং জগতের সবচেয়ে বড় যে পাওয়া তা হচ্ছে তথ্য, ব্লগিং এর জন্য প্রতিদিনই নিজেকে বেশি বেশি তথ্য জানতে হচ্ছে যা অনেকটা নেশার মত হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর জীবনটাই তো শেখার জন্য, জানার জন্য। বর্তমানে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম ও মার্কেটিং উভয় বিষয়ে (বিবিএ) অধ্যায়নরত। প্রয়োজনে যোগাযোগ ফেইসবুকে- মেহেদী হাসান গুগল প্লাস

আপনার মতামত ...