হোয়াটসঅ্যাপ নিরাপত্তায় যোগাযোগ আরো সুরক্ষিত

হ্যা চালু হয়েছে হোয়াটস অ্যাপের নতুন নিরাপত্তা ফিচার যার নাম এন্ড-টু-এন্ড-ইন্সক্রিপশন। গতকাল থেকে ১ বিলিয়ন ইউজারের জন্য এই সেবা চালু করলো অ্যাপের পরিচালনাকারীরা।

ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য শিক্ষনীয় সেরা ওয়েবসাইটআরো একবছর আগে এই নিরাপত্তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো হোয়টসঅ্যাপ। এই নিরাপত্তা ব্যাবস্থা এমন যাতে আপনি যার সাথে চ্যাট করছেন,কল করছেন বা ছবি শেয়ার করছেন তা অন্য কোনো তৃতীয় পক্ষ দেখতে পারবেনা এমনকি হোয়াটস অ্যাপ নিজেও না!! এই ডাটা মেসেজ কোথাও স্টোর ও হবেনা যেমনটা ফেসবুক-টুইটারে হয়…

whatsapp_end_to_end

তবে ব্যাপারটা অন্যভাবে চিন্তা করলে হোয়াটসঅ্যাপকে এখন কোনো কোর্টের মুখোমুখি হতে হবেনা নিজের ব্যাবহারকারীর ডেটা সংক্রান্ত কোনো কিছুর জন্য। কারন অ্যাপটি এধরনের কোনো কিছু স্টোর ই করছেনা।

এখন হোয়াটসঅ্যাপে ঢুকলেই যেকারো মেসেজ অপশনে আপনি দেখতে পাবেন তালাবদ্ধ একটি ইমোর সাথে ছোট্ট একটী মেসেজ

“Message you send to this chat and calls are now secured with end-to-end encryption. Tap for more info.”

 অর্থাৎ “এখন থেকে আপনি এই মেসেজ অপশনে যত কল বা চ্যাট করবেন তার সবই ইন্ড-টু-এন্ড-ইঙ্ক্রিপশন ব্যাবস্থায় সুরক্ষিত।”

কিভাবে বুঝবেন আপনি সুরক্ষিত? 

কিভাবে বুঝবেন আপনার ডেটাগুলো সুরক্ষিত? কেউ আপনার উপর নজর রাখছেনা? হ্যা সেটার উপায় ও আছে। চলে যান হোয়াটস অ্যাপ কন্ট্যাক্টস এ তারপর একোনো একজনের প্রোফাইলে যান। সেখানে অপশন খুযে পাবেন “verify security code”  নামে । সেখানে ক্লিক করুন। ক্লিকের পরের পেইজে দেখবেন একটি স্কানেবল কোড আসবে আপনি সেটা আপনার চ্যাটের অই ব্যাক্তির ফোনে স্ক্যা করে শিওর হতে পারেন । কিন্তু যদি ব্যাক্তির সাথে যোগাযোগ সম্ভব না হয়? তখন?? সেই জন্য আছে ৬০ অক্ষরবিশিষ্ট কোডের মাধ্যমে মিলানোর সুবিধা। এই দুই পদ্ধতিতে আপনি নিশ্চিত হতে পারেন যে আসলেও আপনার চ্যাটে অন্য কারো নজরদারীর কোনো ব্যাবস্থা আছে কিনা।

WhatsApp-end-to-end-encryption

উদয়

সবার মধ্যেই কিছু না কিছু থাকে,সেই কিছু খোজার প্রচেষ্টাতেই আছি। ভালো লাগে টেকনোলজি,তাই টেক-মাস্টারব্লগের সাথে সম্পৃক্ততা ।

আপনার মতামত ...