বাড়ছে বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশনের সময়

আঙ্গুলের ছাপে বায়োমেট্রিক সিম নিবন্ধনের সময়সীমা বাড়ছে বলে জানিয়েছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের এক সূত্র। ধারনা করা হচ্ছে আশানুরূপ পরিমান সাড়া পাওয়া সত্ত্বেও অর্ধেকের বেশি সিম নিবন্ধিত না হওয়ায় এ সিন্ধান্ত নিয়ে মিটিং এ বসবে মন্ত্রীসভা। btrc_mobile_company_13334

এ ব্যাপারে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী বলেন

‘সিম নিবন্ধনের সময়সীমা বাড়াতে অপারেটরদের আবেদনের চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো জনগণ কী চায়। জনগণ যদি মনে করে আরও সময়ের প্রয়োজন, তাহলে সরকার সেটি অবশ্যই বিবেচনা করে দেখবে।’

তারানা হালিম এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে নিয়ে আগামীকাল বৈঠকে বসার কথা জানিয়েছেন। সেখানেই মূল সিদ্ধান্ত হবে যে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন বাড়বে কি বাড়বে না।

বিটিসিএলের তথ্য অনুযায়ী ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত মোট ৭ কোটি ৩৩ লাখ সিম সফলভাবে নিবন্ধিত হয়েছে। আর এ সময়ে আঙুলের ছাপ ও তথ্য না মেলায় এক কোটির বেশি সিমের নিবন্ধন সফল হয়নি। বর্তমানে দেশে চালু থাকা মোট সিমের সংখ্যা ১৩ কোটি ৮ লাখ। সে হিসেবে মোট সিমের ৫৬ শতাংশ সফলভাবে নিবন্ধিত হয়েছে। মানে প্রায় অর্ধেক সিমই এখনো নিবন্ধিত হয়নি।

এর মধ্যে আবার আঙ্গুলের ছাপ না মেলায় নিবন্ধন হয়নি ৬২লাখ মানুষের,প্রায় ৩৫ লাখ মানুষের সিম নিবন্ধিত হয়নি পরিচয়পত্রের অভাবে। এছাড়া আরো অন্যান্য কারনে নিবন্ধন হয়নি আরো ৮লাখ ২০ হাজার সিম!

অ্যাসোসিয়েশন অব মোবাইল টেলিকম অপারেটরস অব বাংলাদেশের (অ্যামটব) মহাসচিব বলেন যা সময় আছে তাতে বাকি সিম নিবন্ধন সম্ভব নয়,তাই সময় বাড়ানো প্রয়োজন।

তথ্যসুত্রঃ প্রথম আলো

উদয়

সবার মধ্যেই কিছু না কিছু থাকে,সেই কিছু খোজার প্রচেষ্টাতেই আছি। ভালো লাগে টেকনোলজি,তাই টেক-মাস্টারব্লগের সাথে সম্পৃক্ততা ।

আপনার মতামত ...