ভারতে সেকেন্ড হ্যান্ড আইফোন বিক্রি নাকচ

সম্প্রতি ভারতের কাছে অ্যাপেল তাদের সেকেন্ড হ্যান্ড ফোনগুলো বিক্রির আবেদন জানায়। আবেদনে বলা হয় নিম্নমধ্যবিত্ত এবং মধ্যবিত্ত মানূষের মাঝে কম দামে আইফোনের মতো স্মার্টফোনের স্বাদ দিতে চায় তারা। বেশ কিছুদিন এ নিয়ে জল্পনা কল্পনার পর অবশেষে এ বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললো দেশটির প্রশাসন।

5354050081_0c7de61045_b

ভারতে অ্যাপেলের সেকেন্ড হ্যান্ড আইফোন বিক্রি করতে দিবেনা ভারত সরকার। এর পরিপ্রেক্ষিতে কারন হিসেবে দেখানো হয় পরিবেশ দূষনকে। ভারতের পরিবেশ ও বনমন্ত্রনালয়ের মতে এসব আইফোন ভারতের পরিবেশে অন্যতম ইলেক্ট্রনিক বর্জ্য  হিসেবে ব্যবহারিত হবে।কারন এসব ফোনের আয়ু প্রায় শেষ।

অনুমতির প্রেক্ষিতে এক লিখিত বক্তব্যে টেলিকম মন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ বলেন,

‘অ্যাপেল-এর আবেদন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে ও ক্যাবিনেটে আলোচনা হয়েছে।অ্যাপল কর্তৃক প্রাক-মালিকানাধীন অথবা ব্যবহৃত আইফোন ভারতে আমদানি, বিক্রি এবং উৎপাদনের আবেদনপত্র পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ে গৃহীত হয়। পরিবেশ মন্ত্রণালয় ও বৈদেশিক বাণিজ্য বিভাগের ডিরেক্টর জেনারেলকে কেন্দ্রীয় প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, অ্যাপেল-এর আবেদন ভারতের সেকেন্ড হ্যান্ড কনজিউমার প্রডাক্ট আমদানি আইন লঙ্ঘন করছে। অ্যাপেল-এর প্রস্তাব মেনে নিয়ে ইলেক্ট্রনিক ওয়েস্ট ভারতে জড়ো হবে। এবং সরকারের মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পেরও স্বার্থ বিঘ্নিত হবে।’

তবে ভারত সরকারের এই সিদ্ধান্তের পিছে স্যামসাং,ইন্টেক্স,মাইক্রোম্যাক্সের মতোন অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের কোম্পানিগুলোর মদদ আছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। এক সুত্রের মতে অ্যাপেলের আবেদন খারিজ করার জন্য দাবি জানিয়েছিলো প্রতিষ্ঠানগুলো।

 

উদয়

সবার মধ্যেই কিছু না কিছু থাকে,সেই কিছু খোজার প্রচেষ্টাতেই আছি। ভালো লাগে টেকনোলজি,তাই টেক-মাস্টারব্লগের সাথে সম্পৃক্ততা ।

আপনার মতামত ...