জিপি-রবিতে 4জি

তৃতীয় প্রজন্মের সেবা দেওয়ার পর এবার জিপি ও রবি চতুর্থ প্রজন্মের (ফোর জি) সেবা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে।ঢাকা চট্টগ্রাম সহ কুমিল্লা ও সিলেটে তারা সব প্রযুক্তি কে চতুর্থ প্রজন্মের সেবা দিতে কাজ শুরু করেছে। এ দুই অপারেটরের হয়ে কাজটি করছে প্রযুক্তি পণ্য সেবাদাতা কোম্পানি এরিকসন।

13255982_909362095858735_7748262832423525107_n

২০১৩ সালে বিটিআরসি  দেশের চারটি মোবাইল ফোন অপারেটরকে তৃতীয় প্রজন্মের (থ্রি জি) সেবা দেওয়ার জন্য অনুমতি দেয়। তবে  থ্রিজি’র লাইসেন্স দেওয়ার সময় একই স্পেকট্রামে ফোরজি সেবা দেওয়ার সুযোগও রাখা হয়েছিল। তবে এ সেবা চালুর আগে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির অনুমোদন নিতে হবে বলে শর্ত দেওয়া হয়েছে।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সম্প্রতি রাজ বলেন, অপারেটর দুটি গুরুত্বপূর্ণ এসব এলাকায় এ কাজে তাদের সর্বোচ্চ শক্তি নিয়োগ করছে। এ জন্য তারা টুজি’র সঙ্গে থ্রিজি’র নেটওয়ার্কেও বড় পরিবর্তন আনছে। একই সঙ্গে ফোরজি’র প্রস্তুতিও সেরে রাখছে।

তবে অন্য আরেক অপারেটর বাংলালিংক তাদের বিরুদ্ধে, তারা তারা বলছে, রবি-এয়ারটেল একীভূতকরণ হলে ২১০০ ব্যান্ডে তাদের স্পেকট্রাম হবে ১০ মেগাহার্ডজ।এতে করে একে অপরের সাথে বৈষম্য দেখা দিবে।

বাংলালিংক এর সাথে একই মত প্রকাশ করেছে আরেকটি জনপ্রিয় মোবাইল অপারেটর গ্রামীণ ফোন। তারা চায় চায় প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা বা টেকনোলজিক্যাল নিউট্রালিটি চালু হওয়ার পরই দেশে ফোরজি আসুক। কিন্তু তবুও জিপি তাদের ফোর জি এর প্রস্তুতি অনেকটা এগিয়েই রাখছে।

আপনার মতামত ...