নারীদের জন্য ফেসবুকের নিয়ম বাঁধা পোশাক!

ফেসবুকের প্রাক্তন কর্মী আন্তোনিও গার্সিয়া মার্তিনেথ সিলিকন ভ্যালির ‘দ্বি-মুখীতা’ নিয়ে একটি বই উন্মোচন করেছেন। আর এই বইতেই উল্লেখ করা হয়েছে,

পুরুষ কর্মীদের ‘মনোযোগ’ যাতে ব্যাহত না হয় সেজন্য মহিলা কর্মীদের ‘ঠিকঠাক’ পোশাক পরার নির্দেশ জারি রয়েছে ফেসবুক সদর দপ্তরে!

দু’বছর আগে চাকরি চলে যায় ফেসবুকের এই কর্মকর্তার। তারপর থেকেই সিলিকন ভ্যালির সাদা মুখোশ নিয়ে একটি বই লেখার পরিকল্পনা করছিলেন। এবং শেষ পর্যন্ত এই পরিকল্পনা নিয়েই লিখে ফেলেন ‘কেওস মাঙ্কিজ: অবসিন ফরচুন অ্যান্ড র‌্যান্ডম ফেলিওর ইন সিলিকন ভ্যালি’। বইয়ের বিভিন্ন অংশে তুলে ধরা হয়েছে ফেসবুক এবং সিলিকন ভ্যালির নানান অসঙ্গতি। বইয়ের একটি পাতায় উল্লেখ আছে , ‘নারী স্বাধীনতা নিয়ে নিজেদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হস্তক্ষেপ করেনা ফেসবুক। আর নিজেদের কার্যালয়ে মেয়েদের পোশাকে নিষেধাজ্ঞা বহাল করা হয়! পুরুষ সহকর্মীদের মনোযোগে বিঘ্ন ঘটানোর জন্য দায়ী করা হয় মহিলা কর্মীদের পোশাককে!’

বইয়ে আন্তোনিও আরও লিখেছেন, ‘একদিন হঠাৎ ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেন, সহকর্মীদের কাজে বিঘ্ন ঘটায়, এমন কোনও পোশাক পরা যাবে না।’ পরে মহিলা কর্মীদের আলাদা করে ডেকে এ বিষয়ে বিস্তারিত অবগত করা হয় বলে আন্তোনিও’র দাবি।

তবে আন্তোনিও’র এই নারী স্বাধীনতা বিরোধী অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। কর্তৃপক্ষের ভাষ্যমতে, ‘আমরা বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্যে বিশ্বাসী। আমরা কখনওই লিঙ্গ, জাতি, বয়স নিয়ে ভেদাভেদ করি না।’

মেহেদী হাসান পলাশ

Mehedi Hasan Polash ভালোবাসি প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে ও জানাতে, এই ভালো লাগা থেকেই যোগ দেওয়া প্রযুক্তি ব্লগিংয়ে। পাশে পেয়েছি টেকমাস্টার ব্লগ কমিউনিটি, দিকনির্দেশনা দিতে শ্রদ্ধেয় মেজবা উদ্দিন ভাই। ব্লগিং জগতের সবচেয়ে বড় যে পাওয়া তা হচ্ছে তথ্য, ব্লগিং এর জন্য প্রতিদিনই নিজেকে বেশি বেশি তথ্য জানতে হচ্ছে যা অনেকটা নেশার মত হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর জীবনটাই তো শেখার জন্য, জানার জন্য। বর্তমানে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে মার্কেটিং ও ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস উভয় বিষয়ে (বিবিএ) অধ্যায়নরত। প্রয়োজনে যোগাযোগ – মেইলঃ mpolash@icloud.com
গুগল প্লাস

আপনার মতামত ...