টিমভিউয়ার দিয়ে বহুদূরের কম্পিউটারে কাজ

যদিও বিষয়টা পুরনো তবুও ভাবলাম লিখে ফেলি। কেননা প্রায়সই আমার বন্ধুদের বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের আগে এই বিষয়টা বুঝিয়ে দিতে হয়। কথা না বাড়ীয়ে আসুন দেখি সেই বিষয়টি কি-
কম্পিউটারে বিভিন্ন সমস্যায় আমরা কম বেশি সবাই পড়ে থাকি। সমাধানের জন্যে তখন আমরা সেই বন্ধুকে খুজি যে এই বিষয়ে একটু বেশিই জ্ঞান রাখে। ঠিক তেমনি আমার বন্ধুরা ভাবে আমি বুঝি তাদের কম্পিউটারের সমস্যা গুলির সমাধান করে দিতে পারবো তাই তারা তখন আমাকে ডাকাডাকি শুরু করে । যদিও বেশিরভাগ সময়ই আমি তাদের সমস্যার সমাধান করে দিতে পারি না তবুও চেষ্টা করি। (কিছুটা ভাবের সহিত+জ্ঞান কম থাকলে যা হয় আরকি) :p

আমার পক্ষে সবার বাড়িতে গিয়ে এইসকল সমস্যা দেখা সম্ভব নয়। তাই আমি টিমভিউয়ার ব্যাবহার করতে বলি, তাতে করে আমি আমার কম্পিউটারে বসেই তাদের কম্পিউটার চালাতে পারি। অনেকেই মনে করে থাকেন এটা এক প্রকার হ্যাকিং, আসলে তা নয় কেননা এখানে যার কম্পিউটারে আপনি ঢুকবেন তার পার্মিশন ছাড়া কাজটি করতে পারবেন না।

প্রসেসটা কিভাবে হবে আসুন দেখে নেই…
তাহলে বিষয়টা ক্লিয়ার হবে।

প্রথমেই চলে যান টিমভিউয়ারের অফিশিয়াল সাইটে www.teamviewer.com সেখান থেকে আপনার অপারেটিং সিস্টেম অনুসারে ডাউনলোড করে নিন TeamViewer softwareটি। তারপর ইন্সটল দিয়ে ওপেন করুন…
ওপেন করলে নিচের মতো উইন্ডো দেখতে পাবেন-

TeamViewer

ধরুন আপনার এবং আমার উভয়ের কম্পিটারেই এই সফটওয্যারটি ইন্সটল দেয়া আছে। এখন ধরুন আমি আপনার কম্পিউটারে ঢুকে কোন একটা কাজ করতে চাই তখন আপনি আমাকে আপনার software এ দেখানো Your id এবং Password দিবেন। আর তা আমি আমার software এর Parent id তে দিব এবং তারপর পাসওয়ার্ড চাইলে আপনার দেয়া সেই পাসওয়ার্ডটি দিব। ব্যাস আমি ঢুকে যাবো আপনার কম্পিউটারে। তারপর সেখানে আমি কাজ করে দিতে পারবো। আবার ঠিক একই পদ্ধতিতে আমি আপনাকে ইউজার পাস দিলে আপনি আমার কম্পিউটারে ঢুকে কাজ করে দিতে পারবেন।আর এই আইডি পাসওয়ার্ড সব সময় এক থাকবে না, আপনি যতবার নেট কানেক্ট করবেন ততবার নতুন নতুন আইডি আর পাস পাবেন। বর্তমানে টিমভিউয়ারের মোবাইল এ্যাপও আছে যা দিয়ে আপনি অন্যের পিসিতে এভাবে ঢুকতে পারবেন।আশাকরি টিমভিউয়ার ব্যাবহার করে আপনারা গ্রুপওয়ার্ক ভালোভাবে করতে পারবেন।

আমার ব্লগের সাথে থাকতে আমার ব্লগের ফেইসবুক পেইজ ছেঁড়া ডায়েরী – ব্লগ এ লাইক দিয়ে সাথে থাকুন।
-ধন্যবাদ।

সজীব

ভালবাসি পড়তে ও চেষ্টা করি লিখতে। লিখতে মাঝে মাঝে ইচ্ছে হয় বলে মানুষের গল্প শুনি, মানুষের সাথে কথা বলি, আড্ডা দেই... এভাবেই কিছু শিখি, সেভাবেই লিখি। এখানে আমার নিজের কৃতিত্ব নেই। সব আপনাদের, মানে আপনারা যারা কিনা আমার সাথে আড্ডা দেন তাদের...

আপনার মতামত ...