উইন্ডোজ ১০ এ ১০০% ডিস্ক/সিপিউ ইউজ সমস্যার সমাধান

উইন্ডোজ ১০ পিসি তে কিছু প্রোগ্রাম চালু আছে কিন্তু পিসি সাময়িকভাবে থেমে যায় অথবা স্লো হয়ে যায়। এই সমস্যার কারণ হলো পিসির হার্ড ড্রাইভ প্রায় ১০০% কাজ করে, তখন পিসির অন্য কোনো কাজ করার মত অতিরিক্ত ক্ষমতা থাকে না, এমনকি অপারেটিং সিস্টেমের কাজও হবে না। এর ফলে সাধের পিসি স্লো হয়ে যাবে বা সম্পূর্ণরূপে হ্যাং করতে পারে। এটি উইন্ডোজ ১০ এর একটি সাধারণ ও কমন সমস্যা কিন্তু এটি ঠিক করা কোনো কঠিন কাজ নয়। আজকে টেকপ্রেমী ইরফান এর মাধ্যমে জানবো কিভাবে খুব সহজেই উইন্ডোজ ১০ এ ১০০% ডিস্ক/সিপিউ ইউজেস সমস্যার সমাধান করা যায়।

কিন্তু প্রথমে আপনার জানতে হবে ১০০% ডিস্ক ব্যবহারই আপনার পিসির আসল সমস্যা নাকি। আর যদি তা না জানেন তাহলে নিম্নোক্ত নিয়মে জেনে নিনঃ

খুঁজে বের করুন যে কারণে আপনার উইন্ডোজ ১০ হার্ড ড্রাইভ অতিরিক্ত কাজ করে

উল্লেখ্য, আপনার হার্ড ড্রাইভ বেশি কাজ করা হলে নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি কিছু সময় নিতে পারে।

১. উইন্ডোজ সার্চ বারে যান এবং লিখুন ‘task manager’। এরপর তা সিলেক্ট করুন।

২. Processes ট্যাবের Disk কলামে দেখুন। এখানে যদি ১০০% থাকে(অথবা ১০০% এর কাছাকাছি থাকে) তাহলে আপনার পিসির হার্ড ড্রাইভ অতিরিক্ত কাজ করে।

 

উইন্ডোজ ১০ এর ডিস্ক ১০০% ব্যবহার করার সমস্যা সমাধান করুণ


এই সমস্যা সমাধানের কিছু উপায় উল্লেখ করা হলো। এখানে উল্লেখিত সকল উপায় আপনাকে ব্যবহার করতে নাও হতে পারে, প্রথম সমাধান থেকে শুরু করুণ।

১. উইন্ডোজ সার্চ বন্ধ করুণ

২. SuperFetch সার্ভিস বন্ধ করুণ

৩. ডিস্ক চেক করা

৪. ভারচুয়াল মেমরি রিসেট করুণ

৫. সাময়িক এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার বন্ধ করুণ

৬. গুগল এবং স্কাইপের সেটিং পরিবর্তন করুণ

৭. পিসির StorAHCI.sys ড্রাইভারটি ঠিক করুন

৮. ডিভাইস ড্রাইভার আপডেট করুণ


সমাধান ১ঃ উইন্ডোজ সার্চ বন্ধ করুণ


উইন্ডোজ সার্চ আপনার ১০০% ডিস্ক ব্যবহার করছে কিনা তা জানতে প্রথমে উইন্ডোজ সার্চ সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিন এবং আপনার পিসির গতি বাড়ে কিনা। যদি তা কাজ করে তাহলে স্থায়ীভাবে তা বন্ধ করে দিন।

 

সাময়িকভাবে উইন্ডোজ সার্চ বন্ধ করুণ

উইন্ডোজ সার্চের মাধ্যমে আপনি দ্রুত আপনার পিসির ফাইলগুলো খুঁজে বের করতে পারেন। আপনি যদি সার্চের জন্য অন্য কোনো সফটওয়্যার ব্যবহার করেন তাহলে উইন্ডোজ সার্চ সম্পূর্ণ বন্ধ করতে পারেন।

এটি যদি আপনার পিসির ১০০% ডিস্ক ব্যবহারের কারণ হয়ে থাকে তাহলে কিভাবে আপনি সাময়িকভাবে উইন্ডোজ সার্চ বন্ধ করবেন (উল্লেখ যে পিসি অফ করে আবার চালু করলে উইন্ডোজ সার্চ আবার চালু হয়ে যাবে)

১. আপনার কি-বোর্ড থেকে একসাথে উইন্ডোজ লোগো কি+X এ চাপুন। তারপর Command Prompt (Admin) সিলেক্ট করুণ।

২. তারপর Yes এ ক্লিক করুণ।

৩. তারপর একটি কালো উইন্ডো আসবে। এইটা হলো Command Prompt উইন্ডো। এখানে টাইপ করুণ net.exe stop “Windows search”।

৪. কি-বোর্ড থেকে Enter চাপুন।

এইবার দেখুন আপনার পিসির ডিস্ক এবং কর্মক্ষমতা বেড়েছে কিনা। যদি বেড়ে থাকে তাহলে স্থায়ীভাবে উইন্ডোজ সার্চ বন্ধ করতে পারেন। তা কিভাবে করবেন নিম্নে উল্লেখ করা হলোঃ

 

স্থায়ীভাবে উইন্ডোজ সার্চ বন্ধ করুণ

১. কি-বোর্ড থেকে একসাথে উইন্ডোজ লোগো কি + R চাপুন। তারপর services.msc লিখুন।

২. তারপর উইন্ডোজ সার্চ অপশনটি পাবেন এবং তাতে ডাবল ক্লিক করে Properties যান।

৩. Startup type থেকে তা Disabled করে দিন। তারপর Apply এবং Ok চাপুন।

বিদ্র: যদি আপনার সমস্যার সমাধান হয়ে যাই তাহলে আর অন্য কোনো সমাধান ব্যবহার করবেন না।


সমাধান ২ – SuperFetch বন্ধ করুণ


এটি দক্ষতার সাথে প্রয়োজনীয় প্রোগ্রাম লোড করে এবং বুট সময় হ্রাস করে। এটি উইন্ডোজ ৮ থেকে ব্যবহার শুরু হয়েছে। আর এটি যদি ডিস্ক ১০০% হওয়ার কারণ হয়ে থাকে তাহলে তা যেভাবে বন্ধ করবেন তা নিম্নে দেওয়া হলো

১. কি-বোর্ড থেকে উইন্ডোজ কি + X চাপুন। তারপর Command Prompt (Admin) সিলেক্ট করুণ।

২. তারপর Yes চাপুন।

৩. তারপর একটি কালো উইন্ডো আসবে। এইটা হলো Command Prompt উইন্ডো। এখানে টাইপ করুণ net.exe stop superfetch

৪. কি-বোর্ড থেকে Enter চাপুন।

কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুণ এবং দেখুন পিসির কর্মক্ষমতা আগের থেকে ভালো হয়েছে কিনা।

সমাধান ৩- ডিস্ক চেক করা


১. কি-বোর্ড থেকে উইন্ডোজ কি + X চাপুন। তারপর Command Prompt (Admin) সিলেক্ট করুণ।

২. তারপর Yes চাপুন।

৩. তারপর একটি কালো উইন্ডো আসবে। এইটা হলো Command Prompt উইন্ডো। এখানে টাইপ করুণ chkdsk.exe/f/r

৪. Enter চাপুন। তারপর ডিস্ক চেক কনফার্ম করার জন্য Y চাপুন। এর কর্মক্ষমতা বুঝার জন্য পিসি রিস্টার্ট করুণ। এর আগে দেখে নিন আপনি সকল সফটওয়্যার বন্ধ করছেন কিনা।

বিদ্র: আপনার পিসিটি বুট করার পর ডিস্ক চেকটি চালু হবে এবং এটি সম্পূর্ণ হতে কিছু সময় নিতে পারে। যদি ডিস্ক চেকের জন্য আপনার কাছে সময় না থাকে তাহলে এটি এড়িয়ে যেতে পারেন।

সমাধান ৪- ভারচুয়াল মেমরি রিসেট করুণ


ভারচুয়াল মেমরিকে পিসির মূল মেমোরির একটি এক্সটেনশন মনে করা হয়। এটি র‍্যাম এবং হার্ড ড্রাইভের একটি অংশ। যখন কোনো প্রোগ্রাম চালু করার জন্য র‍্যাম যথেষ্ট পরিমাণ না থাকে তখন উইন্ডোজ আংশিকভাবে ফাইলগুলো এই মেমরিতে সংরক্ষণ করবে। প্রয়োজন হলে পুনরায় তা র‍্যামে সুইপ করুণ।

 

ভারচুয়াল মেমরি রিসেট করুণ

১. কি-বোর্ড থেকে উইন্ডোজ কি + Pause/ Break কি চাপুন। তারপর Advanced system setting সিলেক্ট করুণ।

২. Advanced ট্যাবে যান, Setting সিলেক্ট করুণ।

৩. আবার Advanced ট্যাবে যান এবং Change এ ক্লিক করুণ।

৪. দেখে নিন Automatically manage paging file size for all drives এ টিক না দেওয়া কিনা।

৫. আপনার উইন্ডোজ ড্রাইভ সিলেক্ট করুণ (c drive) এবং ভারচুয়াল মেমরির জন্য একটি Initial size এবং maximum size সিলেক্ট করুণ।

Initial Size – আপনার পিসির উপর ভিত্তি করে এই মানটি পরিবর্তিত হয়। যদি আপনি না জানেন কি পরিমাণ ব্যবহার করা হয় তাহলে যেকোনো পরিমাণে দিয়ে দিন।

Maximum Size- এইখানে খুব বেশি সেট করবেন না। আপনার র‍্যামের আকারের ১.৫ গুণ হতে হবে। উদাহরণস্বরূপ ৪ গিগাবাইট এর একটি র‍্যামের পিসিতে ৬,১৪৪ মেগাবাইট ভারচুয়াল মেমরি। এর থেকে বেশি হওয়া উচিত না।

ভারচুয়াল মেমরি করার পর আপনাকে Set এবং Ok তে ক্লিক করুণ।

৬. Temp ফাইল সব ক্লিয়ার করুণ। কি-বোর্ড থেকে Windows key + R চাপুন। টাইপ করুণ Temp এবং Enter চাপুন।

৭. সব ফাইল সিলেক্ট করে ডিলেট করে দিন।

 

সমাধান ৫- এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার সাময়িকভাবে বন্ধ করুণ


আপনার পিসিতে ব্যবহার করা এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার সাময়িকভাবে বন্ধ করতে পারেন। দেখে নিন তা ওই সমস্যার জন্য দায়ী কিনা। যদি তা বন্ধ করার পর সব ঠিক হয়ে যাই তাহলে আপনার সফটওয়্যার সাথে যোগাযোগ করুন।

বিদ্র: মাইক্রোসফটের নিজস্ব এন্টি- মেলওয়্যার সফটওয়্যার থাকে পিসিতে। এইটা পিসিতে সবসময় চালু থাকে। আপনি অন্য কোনো সফটওয়্যার ব্যবহার করলেও। যদি আপনি আপনার ব্যবহার করা আলাদা সফটওয়্যার বন্ধ করে দেন তাহলে ভয়ের কোনো কারণ নেই।

আপনার পিসির এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার বন্ধ করার জন্য সফটওয়্যারের দিক নির্দেশনা গুলো পড়ে নিনি এবং সেই নিয়ম অনুযায়ী বন্ধ করুণ।

 

সমাধান ৬- গুগল ক্রোম এবং স্কাইপের সেটিং পরিবর্তন করুণ


কিছু কারণে গুগোল ক্রোম এবং স্কাইপের ফলে ডিস্কের সমস্যা হতে পারে। কিভাবে তার সমাধান করবেন তা উল্লেখ করা হলো-

১. গুগোল ক্রোমে তিন ডট আইকন দেখতে পাবেন তাতে ক্লিক করুণ এবং Settings সিলেক্ট করুণ।

২. নিচের দিকে যান এবং Advanced এ ক্লিক করুণ।

৩. Privacy and Security ক্যাটাগরিতে দেখুন। দেখে নিন Use a prediction service to load pages more quickly তা বন্ধ আছে কিনা।

৪. দেখে নিন স্কাইপ যেন অফ থাকে।

৫. উইন্ডোজ এক্সপ্লোরার থেকে C:\Program Files (x86)\Skype\Phone\ এ যান।

৬. রাইট ক্লিক করুণ skype.exe তে এবং properties সিলেক্ট করুণ।

৭. Security ট্যাবে যান এবং Edit সিলেক্ট করুণ।

৮. ALL APPLICATION PACKAGES এ ক্লিক করুণ এবং Write এ Allow টিক বক্সে এ ক্লিক করুণ। তারপর Ok দিয়ে সেইভ করুণ।

 

এখন দেখুন আপনার ডিস্কের Task Manager। আপনার সমস্যার সমাধান হয়েছে কিনা।

 

সমাধান ৭- আপনার StorAHCI.sys ড্রাইভারটি ঠিক করুন


যদি আপনি উপরের সবগুলো সমাধান চেষ্টা করেও এই সমস্যা থেকে মুক্ত না হন তাহলে এই সমাধানটি চেষ্টা করুণ।

উইন্ডোজ ১০ এ এই সমস্যাটি করার পিছনে যদি কিছু উন্নত হোস্ট কন্ট্রোলার ইন্টারফেস PCI-Express(AHCI PCle) মডেলগুলোর ফার্মওয়্যারের বাগের কারণে হয়।

 

কিভাবে এই সমস্যাটি সমাধান করবেন তা নিম্নে দেওয়া হলো-

১. উইন্ডোজ কি + X প্রেস করে Device Manager ওপেন করুণ।

২. IDE ATA/ATAPI Controllers ক্যাটাগরি তে ক্লিক করুণ এবং AHCI controller ডাবল ক্লিক করুণ।

৩. Driver ট্যাবে যান এবং Driver Details এ ক্লিক করুণ। storahci.sys সিস্টেম ৩২ Path এ সংরক্ষিত দেখতে পারেন। তারপর আপনি ইনবক্স থেকে AHCI driver চালু করুণ।

৪. Driver Details উইন্ডো বন্ধ করুণ এবং Details ট্যাবে যান। তারপর Device Instance Path সিলেক্ট করুণ। Path টি যেন VEN_ থেকে শুরু হয়।

৫. স্টাট প্যানেলের সার্চ বক্সে regedit টাইপ করুণ তারপর Enter চাপুন। তারপর Registry Editor এ যাবে।

 

HKEY_LOCAL_MACHINE\System\CurrentControlSet\Enum\PCI\ <AHCI Controller>\<Random Number>\Device Parameters\Interrupt Management\MessageSignaledInterruptProperties

স্টেপ ২ এ যে নামটি দেখতে পাচ্ছেন তা উল্লেখ করেন <AHCI Controller>

বিভিন্ন মেশিনের উপর নির্ভর করে <Random Number>

৬. MSISupported এ ডাবল ক্লিক করুণ এবং এর ভেলু ০ করে দিন।

৭. আপনার পিসি রিস্টার্ট করুণ।

সমাধান ৮- ডিভাইস ড্রাইভার আপডেট করুণ


যদি উপরের ধাপগুলো আপনার সমস্যার সমাধান না করে থাকে। তাহলে ডিভাইস ড্রাইভারের কারণে সমস্যা হতে পারে।

আপনি ডিভাইস ড্রাইভার আপডেট করতে পারেন। ড্রাইভার ইজির মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার পিসির জন্য সঠিক ড্রাইভার ইন্সটল করে দিবে।

আপনি আপনার পিসির জন্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফ্রি অথবা প্রো ভার্সন নিতে পারেন। প্রো ভার্সনটি থেকে আপনি সকল প্রকার সাপোর্ট পাবেন এবং ৩০ দিনের অর্থ ফেরত গ্যারানি পাবেন।

১. ডাউনলোড এবং ইন্সটল করুণ ড্রাইভার ইজি।

২. ড্রাইভার ইজি চালু করুন এবং Scan এ ক্লিক করুণ। তা আপনার পিসির যেকোনো সমস্যা ধরে ফেলবে।

৩. আপডেট বাটনে ক্লিক করুণ এবং আপনার সিস্টেমের জন্য সঠিক ভার্সন ডাইনলোড করে দিবে এবং তা ইন্সটল করে ব্যবহার করুণ।

 

 

ইরফান

জানতে এবং জানাতে ভালোবাসি

One thought on “উইন্ডোজ ১০ এ ১০০% ডিস্ক/সিপিউ ইউজ সমস্যার সমাধান

আপনার মতামত ...