অ্যান্ড্রয়েড সিকিউরিটি লক ভাঙ্গার উপায়

আপনি যদি আপনার অ্যানড্রয়েডে স্ক্রিন সিকিউরিটি লক খোলার পিন, পাসওয়ার্ড বা প্যাটার্ন ভুলে যান  তাহলে ভয় পাবার কিছু নেই। অনেকেই মনে করেন যে, এমন হলে তিনি আর কখনো এই অ্যানড্রয়েডটি ব্যবহার করতে পারবেন না। আসলে তা নয়। সিকিউরিটি লকগুলো এমন ভাবে ডিজাইন করা হয় যাতে বহিরাগত কেউ এই লক ভেঙ্গে অ্যানড্রয়েডে প্রবেশ করতে না পারে। তবে পিন বা পাসওয়ার্ড ব্যতিত এই লক খোলা একেবারেই অসম্ভব কিছুনা যদি আপনার কিছু ট্রিক্স জানা থাকে।

অ্যানড্রয়েড এবং ট্যাবলেট এর সিকিউরিটি লক খোলার জন্য অনেক ধরণের উপায় আছে। যদিও এর সবগুলো সব ধরণের ডিভাইসে কার্যকরী হয়না। এখানে সিকিউরিটি লক খোলার ৭টি উপায় নিয়ে আলোচনা করা হল। আশা করি এর যেকোনো একটি আপনার ডিভাইসে অবশ্যই কার্যকরী হবে।

 

পদ্ধতি-১

“অ্যানড্রয়েড ডিভাইস ম্যানেজার” ব্যবহারঃ

যারা নতুন অ্যানড্রয়েড কিংবা ট্যাবলেট ব্যবহার করছেন তাদের জন্য ‘অ্যানড্রয়েড ডিভাইস ম্যানেজার’ ব্যবহার করা হল সর্বোত্তম। আপনি যদি অ্যানড্রয়েডে গুগল অ্যাকাউন্টে লগইন করে থাকেন তবে আপনি যেকোনো ডিভাইস বা কম্পিউটারের মাধ্যমে এই সেবা লাভ করতে পারেন।

যা করতে হবে-

(ক) নিচের লিংকটিতে যেয়ে ‘গুগল ফাইন্ড মাই ডিভাইস’ পেইজটি ওপেন করুন।

(খ) ‘লক’ বাটনে ক্লিক করুন। এতে করে আপনার অ্যানড্রয়েডে ‘অ্যানড্রয়েড ডিভাইস ম্যানেজার’ চালু হবে। যদি ‘অ্যানড্রয়েড ডিভাইস ম্যানেজার’ চালু না হয় তবে কয়েকবার ‘রিফ্রেশ’ বাটন চাপুন।

(গ) ‘লক’ বাটনে ক্লিক করার পর আপনার কাছে নতুন পাসওয়ার্ড চাবে। এখানে নতুন পাসওয়ার্ড দিলে তা আপনার অ্যানড্রয়েডের যে পাসওয়ার্ড আপনি ভুলে গেছেন তাকে প্রতিস্থাপন করবে।

(ঘ) এবার আপনার নতুন পাসওয়ার্ডটি ২ বার টাইপ করে ‘লক’ বাটনে ক্লিক করুন। নতুন পাসওয়ার্ড প্রতিস্থাপন হতে ৫ মিনিট সময় লাগতে পারে। ৫ মিনিট পর আপনি আপনার অ্যানড্রয়েডটি নতুন পাসওয়ার্ডের মাধ্যমেই খুলতে পারবেন।

 

 

পদ্ধতি-২

স্যামসাং এর “ফাইন্ড মাই মোবাইল” সেবা চালুকরণঃ

আপনি যদি স্যামসাং ডিভাইস ব্যবহার করেন তাহলে ‘ফাইন্ড মাই মোবাইল’       সেবাটি আপনি ব্যবহার করতে পারবেন।

যা করতে হবে-

(ক) যেকোনো ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে নিচের লিংকটিতে যেয়ে আপনার স্যামসাং অ্যাকাউন্টে লগইন করুন। আপনার যদি স্যামসাং অ্যাকাউন্ট না থাকে তবে এ সেবাটি আপনি ব্যবহার করতে পারবেন না।

(খ) স্যামসাং অ্যাকাউন্ট এ লগইন করার পর বামদিকে ‘লক মাই স্ক্রিন’ এ ক্লিক করুন।

(গ) একটি নতুন পিন টাইপ করুন এবং নিচের ‘লক’ বাটনে ক্লিক করুন।

(ঘ) ২-১ মিনিটের মধ্যেই আপনার অ্যানড্রয়েডের পুরনো পাসওয়ার্ডের জায়গায় এই নতুন পিন প্রতিস্থাপিত হয়ে যাবে।

 

পদ্ধতি-৩  

“ফরগট প্যাটার্ন” ফিচার ব্যবহারঃ

আপনার ডিভাইসটি যদি অ্যানড্রয়েড ৪.৪ কিংবা এর চেয়ে নিচের কোন ভার্সনের হয় তবে ‘ফরগট প্যাটার্ন’ ফিচারটি ব্যবহার করতে পারেন।

যা করতে হবে-

(ক) ৫বার স্ক্রিন লক খুলতে ব্যর্থ হলে একটি বার্তা আসবে যাতে লিখা থাকবে ‘ট্রাই অ্যাগেইন ইন ৩০ সেকেন্ডস’।

(খ) উক্ত বার্তাটি স্ক্রিনে থাকা অবস্থায় নিচে ‘ফরগট প্যাটার্ন’ নামক অপশনোটি চাপুন।

(ঘ) তারপর ‘এন্টার গুগল ডিটেইলস’ অপশনে যান।

(ঙ) তারপর আপনার জিমেইল অ্যাকাউন্টের আইডি এবং পাসওয়ার্ডটি লিখুন।

(চ) গুগল আপনাকে নতুন প্যাটার্ন সম্বলিত একটি বার্তা পাঠাবে কিংবা আপনি নিজে থেকেই নতুন প্যাটার্ন তৈরি করতে পারবেন।

পদ্ধতি-৪

অ্যানড্রয়েড ডিভাইসটি রিসেট করাঃ

আপনি চাইলে আপনার অ্যানড্রয়েড ডিভাইসটি রিসেট করতে পারেন। তবে আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে, এর ফলে আপনি আপনার পুরনো সব ডাটা হারিয়ে ফেলবেন। তাই আপনার কাছে যদি ডাটা হারানোর চেয়ে অ্যানড্রয়েড ডিভাইসটি পুনরায় ব্যবহার করাটাই মূখ্য হয় তবে ডিভাইসটি রিসেট করতে পারেন। তবে অ্যানড্রয়েড এর পুরনো ভার্সনগুলোতে কোন গুগল অ্যাকাউন্ট পাসওয়ার্ডের প্রয়োজন না হলেও ২০১৬ সালের পর যেসব অ্যানড্রয়েড গুলো চালু হয়েছে তা রিসেট করতে গুগল অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড প্রয়োজন হয়।

এই প্রক্রিয়াটি ডিভাইস ভেদে ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে। তবে প্রায় সব ডিভাইসেই কিছু সাধারণ ধাপ থাকে। যেমন-

(ক) ডিভাইসটির পাওয়ার অফ করুন।

(খ) এবার ‘ভলিউম আপ’ বাটন এবং ‘পাওয়ার’ বাটন একত্রে চেপে ধরুন।

(গ) ‘অ্যানড্রয়েড বুট লোডার’ মেনু ওপেন হবে।

(ঘ) এবার ‘ভলিউম আপ এবং ডাউন’ বাটন ব্যবহার করে ‘ওয়াইপ ডাটা/ ফ্যাকটরি রিসেট’ অপশনে যান।

(ঙ) ‘পাওয়ার’ বাটনের মাধ্যমে তা সিলেক্ট করুন।

(চ) নতুন আরেকটি পেইজ আসবে।

(ছ) এবার ‘ভলিউম আপ এবং ডাউন’ বাটন ব্যবহার করে ‘ইয়েস- দিলেট অল ইউজার ডাটা’ অপশনে যান।

(জ) ‘পাওয়ার’ বাটনের মাধ্যমে তা সিলেক্ট করুন।

(ঝ) সব ডাটা মুছে গেলে পুনরায় ‘অ্যানড্রয়েড বুট লোডার’ মেনু ওপেন হবে।

(ঞ) এবার ‘পাওয়ার’ বাটনের মাধ্যমে ‘রিবুট সিস্টেম নাউ’ অপশনে সিলেক্ট করলে আপনার অ্যানড্রয়েডটি সম্পূর্ণ নতুন ডিভাইস রুপে চালু হবে।

 

পদ্ধতি-৫

পাসওয়ার্ড ফাইল ডিলেট করতে এডিবি ব্যবহারঃ

এই অপশনটি ব্যবহার করতে পারবেন যদি আপনার অ্যানড্রয়েডে পূর্বে ইউ এস বি ডিবাগিং অপশন চলু করা থাকে। সেই সাথে আপনার কম্পিউটারটি আপনার অ্যানড্রয়েড এর সাথে এডিবি দ্বারা সংযুক্ত করা থাকে। শুধুমাত্র এই অপশনগুলো থাকলে তবে আপনি এই পদ্ধতিটি ব্যবহার করতে পারবেন।

যা করতে হবে-

(ক) আপনার ফোনটি কম্পিউটারের সাথে ইউএসবি ডাটা ক্যাবলের মাধ্যমে সংযুক্ত করুন।

(খ) তারপর ‘এডিবি ইন্সটলেশন’ এ যেয়ে একটি ‘কমান্ড প্রমট উইন্ডো’ ওপেন করুন।

(গ) তাতে নিচের কমান্ডটি লিখুন এবং এন্টার চাপুন।

  • adb shell rm /data/system/gesture.key

(ঘ) এবার আপনার অ্যানড্রয়েডটি রিবুট করুন।

(ঙ) দেখা যাবে আপনার ফোনের সিকিউরিটি লকটি চলে গেছে।

(চ) এবার নিজের ইচ্ছামতো পিন বা পাসওয়ার্ড দিন।

 

পদ্ধতি-৬

“সেইফ মোড” চালু করাঃ

আপনার ফোনের স্ক্রিন যদি কোন এপের মাধ্যমে লক করা থাকে তবে ‘সেইফ মোড’ চালু করে সমস্যার সমাধান করা যায়।

যা করতে হবে-

(ক) ‘পাওয়ার’ বাটনে চেপে ধরুন।

(খ) ‘পাওয়ার মেনু’ অপশন আসবে।

(গ) ‘পাওয়ার অফ’ অপশনে কিছুক্ষণ চেপে ধরলে ‘সেইফ মোড’ অপশন চালুর জন্য অনুমতি চাবে।

(ঘ) ‘ওকে’ বাটন চাপলে আপনার অ্যানড্রয়েডটি রিবুট হয়ে সেইফ মোডে চালু হবে এবং ওই লক স্ক্রিন এপটি সেইফ মোডে কাজ করতে পারবেনা।

(ঙ) এবার ওই এপটির সব ডাটা মুছে দিন অথবা আনইন্সটল করে দিন।

(চ) তারপর ফোনটি আবার রিবুট করলে ‘সেইফ মোড’ থেকে বের হয়ে ‘সাধারণ মোডে’ চালু হবে।সেই সাথে কোন স্ক্রিন লক ও আসবেনা।

 

পদ্ধতি-৭

লক স্ক্রিন ইউআই ক্র্যাশ করাঃ

আপনার ডিভাইসটি যদি অ্যানড্রয়েড ৫.০ থেকে ৫.১.১ ভার্সনের হয় তবে আপনি এই পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারবেন। এর বাইরে অন্য কোন ডিভাইসে এটি কাজ করবেনা।

যা করতে হবে-

(ক) লক স্ক্রিনে ‘ইমারজেন্সি কল’ অপশনটি চাপুন।

(খ) তারপর ডায়াল প্যাডে ১০ বার তারকা চিহ্নের বাটনটি চাপুন।

(গ) তারকা চিহ্নের লেখাটি পুরো সিলেক্ট করে কপি করুন।

(ঘ) তারপর এর পাশেই স্পেস না দিয়ে লেখাটি পেস্ট করুন। এতে করে ফিল্ডটিতে মোট ২০টি তারকা চিহ্ন হল।

(ঙ) এবার এই ২০টি তারকা চিহ্ন কপি করে এর পাশে পুনরায় পেস্ট করে একে দ্বিগুন করুন।

(চ) এভাবে কপি পেস্ট প্রক্রিয়া চালিয়ে যান যতক্ষণ পর্যন্ত না পুরো লেখাটি আর সিলেক্ট করা যায়।

(জ) তারপর আবার লক স্ক্রিনে যান এবং ক্যামেরা শর্টকাট এ প্রবেশ করুন।

(ঝ) সেখান থেকে নোটিফিকেশন বারে যেয়ে সেটিংস অপশনটি চাপুন।

(ঞ) আবার লক স্ক্রিন আসবে যেখানে আপনাকে পাসওয়ার্ড দিতে বলবে।

(ট) এখানে পূর্বের লেখাটি বার বার পেস্ট করলে এক সময় আপনার লক স্ক্রিন ক্র্যাশ করবে এবং আপনি আপনার ফোন আগের মতো ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনার মতামত ...