ব্লাড ডোনেশন ফিচার নিয়ে ফেসবুক

মানব জীবনে ক্রমান্বয়ে ফেসবুক দখল করে নিয়েছে এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। মানুষ তাঁর সুখ-দুঃখ, হাঁসি-কান্না সব কিছু শেয়ার করে থাকে এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটিতে…
আজকাল ফেসবুক হয়ে উঠছে বিপদের বন্ধু। কারো ইমারজেন্সি কোন কিছুর প্রয়োজন হলে ফেসবুক এর মাধ্যমেই অনেকেই চেয়ে বসে। তেমনি এক দরকারি অতি মূল্যবান বস্তু হল ব্লাড।

আজকাল ফেসবুক জুড়ে রয়েছে হাজারো স্বেচ্ছায় ব্লাড দান গ্রুপ। তাই ফেসবুক এর কর্ণধার এইবার এই জিনিষ টির উপর চোখ দেন…

জরুরি অবস্থায় যাতে সময়মতো ও জীবাণুমুক্ত রক্তের সন্ধান পাওয়ার ক্ষেত্রে অভিনব উদ্যোগ নিলেন মার্ক জুকেরবার্গ৷ এই কারণে নতুন ফিচার আনতে চলেছে ফেসবুক৷

জানা যায়, শুধুমাত্র ভারতেই এই ফিচার চালু করা হয়েছে। গত ১লা অক্টোবর থেকে চালু হয়েছে এই ফিচার৷ সেদিন ছিল ভারতের জাতীয় রক্তদান দিবস৷ তাই নতুন ফিচারের জন্য এই দিনটিকেই বেছে নিয়েছে ফেসবুক৷

জানা গেছে, ফিচারটা চালুর পর ইউজারদের কাছে একটি এসএমএস পাঠিয়ে তাদের নাম ডোনারের জন্য নথিভুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু হবে৷ এই তথ্যটি তারা চাইলে গোপন রাখতে পারেন অথবা শেয়ার করতে পারেন৷ যাদের যখন রক্তের প্রয়োজন হবে তারা পোষ্ট করে ডোনারদের কাছে সাহায্য চাইতে পারবেন৷

এরপর প্রয়োজনের সময় ফেসবুক থেকে সবার কাছে সাহায্য চেয়ে রিমাইন্ডার দেওয়া হবে৷ যারা সাহায্য চাইবেন এবং যারা সাহায্য করতে আগ্রহী হবেন উভয়পক্ষই মাথার ঘাম পায়ে না ফেলেই খুব সহজে সাড়া পেয়ে যাবেন৷

এই ফিচারটির প্রয়োজনীয়তা নিয়ে মার্ক ফেসবুকে একটি পোষ্ট করেন…তাতে তিনি লেখেন,

প্রত্যেক সপ্তাহে ফেসবুকে রক্তের জন্য ডোনার চেয়ে হাজার হাজার পোষ্ট পড়ে। অনেক দেশের মতো ভারতেও মাঝে মধ্যে ডোনারের ঘাটতি দেখা যায়৷ এই ফিচার চালু হলে নিঃসন্দেহে অনেকে উপকৃত হবেন ৷

সাইফুল্লাহ নাহিদ

পড়তে ও জানতে ভালো লাগে…
টেকনোলজি সংক্রান্ত বিষয় হলে তো কথাই নেই..😊
সেই ভালো লাগা থেকেই একটুখানি জানানোর প্রচেষ্টা…
স্বপ্ন দেখি…
অনেক স্বপ্ন…
তাই দোয়া চাই সবার কাছে…

আপনার মতামত ...