‘এইচআইভি’ ভাইরাস সনাক্তে স্মার্টফোন

স্মার্টফোন, শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ আবিষ্কার।
নতুন নতুন সব চমক নিয়ে এসে মানব সভ্যতা কে এগিয়ে নিচ্ছে দূর-বহুদূর!

এবার স্মার্টফোনের মাধ্যমে মাত্র ১০ সেকেন্ডেই যাচাই করে নেওয়া যাবে কোন ব্যক্তি এইচআইভি আক্রান্ত কিনা। বিজ্ঞানীরা এমনই এক স্মার্টফোন আবিষ্কার করেছেন।

চিকিৎসকদের এই স্মার্টফোনের ফলাফল এইচআইভি রোগীদের খুঁজে বের করে চিকিৎসা করাতে বিশেষ সাহায্য করবে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রচলিত পদ্ধতিতে এইচআইভি পরীক্ষা করতে অন্তত ৭২ ঘণ্টা সময় লাগে। কিন্তু এখন আর এত সময় লাগবে না।

ইংল্যান্ডের গবেষক দলের বিজ্ঞানীরা জানান,

যে তত্ত্বে ভর করে এইচআইভি টেস্ট করা সম্ভব হয়েছে তা ব্যবহার করে জিকা, ইবোলার মতো ভাইরাসের সন্ধানও করা যেতে পারে। গোটা প্রক্রিয়াটির বিজ্ঞানের ভাষায় নাম ‘সারফেস অ্যাকোস্টিক ওয়েভ’ বায়েচিপ। এটি মাইক্রোইলেক্টনিক যৌগ দিয়ে তৈরি বায়োচিপ যা স্মার্টফোনে ভরা থাকছে। এর সঙ্গে থাকছে একটি কন্ট্রোল বক্স যা সিগন্যালের মাধ্যমে ফলাফল দেখিয়ে দেবে। এই বায়োচিপ অনেকটা ইউএসবি ড্রাইভের মতো যা স্মার্টফোনে ভরা থাকবে।

গবেষকরা আরো জানান,

ইউএসবি ড্রাইভের স্টিকের ওপর একটা জায়গা চিহ্নিত করা থাকবে। খুব সামান্য মাত্রায় তার ওপর রক্ত ফেলতে হবে। রক্তে এইডস ভাইরাস থাকলে বা তার মাত্রা বেড়ে গেলে ওই যন্ত্রটির স্টিকে লাগানো এসিডের রং বদলে যাবে, বদলে যাবে এসিডের কিছু গুণাগুণও।

সাইফুল্লাহ নাহিদ

পড়তে ও জানতে ভালো লাগে... টেকনোলজি সংক্রান্ত বিষয় হলে তো কথাই নেই..? সেই ভালো লাগা থেকেই একটুখানি জানানোর প্রচেষ্টা... স্বপ্ন দেখি... অনেক স্বপ্ন... তাই দোয়া চাই সবার কাছে...

Leave a Reply

Your email address will not be published.