ভালো কাজের চ্যালেঞ্জ নিন,পাগলামির নয়

আমি ব্লু হোয়েল গেম খেলতেছি, এত পর্বে আছি ইত্যাদি ইত্যাদি। এমন কোন পোষ্ট কেউ দিলে তার আইডি লিংক ও পরিচয় বাংলাদেশ পুলিশ বা র‍্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটিলিওন (RAB) এর ফেসবুক আইডিতে দিয়ে একটা অভিযোগ করে তাকে আইনের হাতে দেয়ার ব্যবস্থা করুন।  কারণ ,এমন পোষ্টের কারণে অনেকেই বিভ্রান্ত হচ্ছে।

আর কেউ যদি সত্যিই এটা খেলে, তাহলে ধরে নিতে হবে সে মানুষিক রুগী। কারণ এই গেমের মুল এডমিনের বক্তব্য হচ্ছে,

“যারা মানুষিক বিকারগ্রস্ত তাদের বেঁচে থাকার কোন অধিকার নাই। আমি তাদেরকে হত্যা করে সমাজ সংস্কারের দায়িত্ব নিলাম।”

তাই এমন রুগীকে সুস্থ করা আমাদের দায়িত্ব।

 এই গেমটা যখন কেউ একবার ইন্সটল করে তবে তা সিস্টেম এপ্সের মত আর আনইন্সটল করা যায়না। যখন আপনি এই এপ্স ইন্সটল করবেন তখন আপনার ইমেইল, ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ইমু, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সহ সবকিছুর পাসওয়ার্ড, এমনকি আপনার ফোনের আইপি অ্যাড্রেস সহ সব তথ্য চলে যাবে অ্যাডমিন এর কাছে। অর্থাৎ প্রথমেই আপনি তার কাছে জিম্মি হয়ে গেলেন।

এ গেমের যেসব শর্ত / টাস্ক থাকে তা পূরণ করা কোন নৈতিকতা সম্পূর্ণ লোকের পক্ষে সম্ভব নয়। কারণ ড্রাগস নেয়া, নিজেকে ক্ষতবিক্ষত করা, মারামারি করে কাউকে রক্তাক্ত করে ছবি দেয়া, চুরি করা, কোন মহিলার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে ছবি দেয়া, পরিবারের লোকজনের সাথে ঝগড়া করা, এসব কোন সুস্থ মানুষ বা নৈতিকতা সম্পূর্ণ মানুষ করতে পারেনা।

এটা একটা সুইসাইড গেম হওয়ার কারণে অনেকে শুনেই বলে ফেলে

“ধুর! এটা কোন কথা? গেম খেললে আবার মারা যায় কিভাবে? আমি খেলে দেখিয়ে দিবো “

এমন চিন্তা করে এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেয়। যা তাকে ধিরে ধিরে মৃত্যুর দিকে নিয়ে যায়!

তাই আসুন চ্যালেঞ্জ নিই ভালো কাজে। পাগলামির নাম চ্যালেঞ্জ নয়।।।।

সাইফুল্লাহ নাহিদ

পড়তে ও জানতে ভালো লাগে…
টেকনোলজি সংক্রান্ত বিষয় হলে তো কথাই নেই..😊
সেই ভালো লাগা থেকেই একটুখানি জানানোর প্রচেষ্টা…
স্বপ্ন দেখি…
অনেক স্বপ্ন…
তাই দোয়া চাই সবার কাছে…

আপনার মতামত ...