ফেসবুকে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনে কঠোরতা

সম্প্রতি মার্কিন নির্বাচন নিয়ে প্রভাব ফেলার জন্য দায়ী করা হয়েছিল ফেসবুক কে। তাই সম্প্রতি রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বা পলিটিক্যাল অ্যাডের এই সমস্যা নিয়ে বিশেষ ভাবে নজর দিয়েছেন ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ। এই ধরণের পলিটিক্যাল অ্যাডের জন্য আরও স্বচ্ছতার ব্যবস্থা আনতে চলেছে ফেসবুক।

এজন্য তিনটি পয়েন্ট তুলেছেন জুকারবার্গ,

০১। রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনদাতাতের জন্য ফেসবুকের প্রথম শর্ত আনা হয়েছে, তারা তাদের পরিচয় খোলসা করবে। কে টাকা দিচ্ছে অ্যাড ক্যাম্পেইনের জন্য, তা জানাতে হবে।

০২। পলিটিক্যাল অ্যাডভার্টাইজারদের দেওয়া যেকোনো অ্যাডই পলিটিক্যাল বা রাজনৈতিক বলে ধরে নেওয়া হবে।

০৩। এর আগে কোন কোন অ্যাড চলেছে পেজে, দেখা যাবে সেটিও। অ্যাডের জন্য টাকা কোথা থেকে এসেছে, ফেসবুক জানিয়ে দেবে সেটাও। পলিটিক্যাল অ্যাড চিহ্নিত করার জন্য আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সে রদবদল আনা হচ্ছে। সেই মতো এই ধরণের অ্যাডকে আলাদা ভাবে চিনে ফেলবে মেশিন লার্নিং অ্যালগোরিদম।

ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা আগেই জানিয়েছিলেন, যে পোস্টগুলি সন্ত্রাসে উস্কানি দেয়, তাদের আলাদা ভাবে ধরে ফেলা সম্ভব হবে এবার থেকে।

সাইফুল্লাহ নাহিদ

পড়তে ও জানতে ভালো লাগে…
টেকনোলজি সংক্রান্ত বিষয় হলে তো কথাই নেই..😊
সেই ভালো লাগা থেকেই একটুখানি জানানোর প্রচেষ্টা…
স্বপ্ন দেখি…
অনেক স্বপ্ন…
তাই দোয়া চাই সবার কাছে…

আপনার মতামত ...