২০১৮’র প্রযুক্তি নির্ভর শীর্ষ স্মার্টফোন

২০১৮ সাল শেষ হয়ে চলে এলো ২০১৯ সাল। প্রযুক্তি প্রতিদিন বদলে যায়, নতুন সব ফিচার নিয়ে হাজির হয় অত্যাধুনিক সবপ্রযুক্তি। মানুষ তার কর্মব্যস্ত সময় শেষে চায় নিজের জন্য একটু বিনোদনের জায়গা খুজেঁ নিতে। আর সেকারণেই প্রযুক্তি সে ব্যবস্থা করে দিচ্ছে প্রতিনিয়ত। স্মার্টফোনের মাধ্যমে মানুষ এখন থিয়েটারের আনন্দ নিতে পারে নিজের ঘরের সোফায় বসে। জীবনের সব আনন্দময় মুহূর্তগুলো আমরা স্মার্টফোনের মাধ্যমে ক্যাপচার করে রাখতে পারি। তাহলে চলুন জেনে নেই ২০১৮ সালে প্রযুক্তি নির্ভর স্মার্টফোনের গল্প

১.স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৯

দক্ষিন কোরিয়ার স্মার্টফোন নির্মাতা স্যামসাং বাজারের সবচেয়ে শীর্ষে আছে।যা ধারনা করা হচ্ছে ২০১৯ সালেও থাকবে।স্যামসাং এর বিভিন্ন অত্যাধুনিক ফিচারের জন্য সব সময় মানুষের চাহিদার মধ্যে থাকে।Samsung Galaxy Note9 এ  6.4 ইঞ্চি ডুয়েল কার্ভড সুপার এমোলেড ইনফিনিটি ডিসপ্লে যার স্ক্রিন রেজুলেশন 1440 x 2960 পিক্সেলস।Samsung গ্যালাক্সি নোট 9,Samsung Galaxy Note8 এর থেকে ১০% বেশি উজ্জ্বল।Samsung গ্যালাক্সি নোট 9 এর 6জিবি RAM + 128 জিবি স্টোরেজ এবং  8জিবি RAM + 512জিবি স্টোরেজ।ফটোগ্রাফির জন্য ডুয়েল ইমেজ স্টেবিলাইজেশনের সাথে ডুয়েল 12 এমপি +12এমপি রেয়ার ক্যামেরা আছে।

 

২.শাওমি রেডমি নোট ৫ প্রো

বর্তমানে শাওমি খুব চলছে।তারা বাজার যেমন ধরেছে তেমনি মানুষের চাহিদা অনুযায়ী অত্যাধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর স্মার্টফোন এনেছে।যা যেকোন বাজেটের মধ্যে পাওয়া যাবে।শাওমি রেডমি নোট ৫ প্রো ১৮:৯ অনুপাত এবং ৫.৯৯ ইঞ্চি পর্দার এই ফোনটিতে ১.৮ গিগাহার্জের শক্তিশালী অক্টাকোর স্ন্যাপড্রাগন ৬৩৬ চিপসেট এবং জিপিইউ হিসেবে আড্রিনো ৫০৯ ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটির অন্যতম প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে এর ক্যামেরা বিভাগ।

ফোনটির রিয়ার ক্যামেরায় ১২ মেগাপিক্সেল এবং ৫ মেগাপিক্সেলের মাইক্রনপিক্সেল সমৃদ্ধ দুটি আলাদা সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। সেলফি ক্যামেরা হিসাবে একটি ২০ মেগাপিক্সেল সেন্সর রয়েছে এতে। উভয়পাশে সনি আইম্যাক্স সেন্সর এবং মাইক্রনপিক্সেল থাকার কারণে দিনের পাশাপাশি রাতের বেলাতেও ফোনটি দিয়ে বেশ ভালো মানের ছবি তোলা যাবে।যা বেশির ভাগ ফোনে মানুষ এখন চায়।

 

৩.ওয়ানপ্লাস ৫-টি

ওয়ানপ্লাস কম বাজেটের মধ্যে পাওয়া যায় বলে বিশ্বে এটা বিখ্যাত এবং চাহিদা বেশি।ওয়ানপ্লাসের আগের ফ্ল্যাগশিপের মতোই এই মডেলটি বিশ্ববাজারে ব্যাপক আলোড়ন তৈরি করেছে।ওয়ানপ্লাস ৫-টি ফোনে স্ন্যাপড্রাগনের শক্তিশালী অক্টাকোরের ৮৩৫ ফ্ল্যাগশিপ চিপসেট এবং জিপিইউ হিসেবে আড্রিনো ৫৪০ ব্যবহার করা হয়েছে।

৬.০১ ইঞ্চির পর্দায় ব্যবহার করা হয়েছে অপটিক আম্যোলেড অত্যাধুনিক প্রযুক্তি। ফোনটির ক্যামেরা সবচেয়ে বেশ আকর্ষণীয়।রিয়ার ক্যামেরায় ১৬ এবং ২০ মেগাপিক্সেলের দুটি সনি আইএমএক্স লেন্স ব্যবহার করা হয়েছে।এছাড়া এর সেলফি ক্যামেরায়ও আছে ১৬ মেগাপিক্সেলের সনি সেন্সর। তিনটি সেন্সরেই মাইক্রন পিক্সেল ব্যবহার করার কারণে দিনের পাশাপাশি রাতেও এই ফোন দিয়ে চমৎকার ছবি তোলা যায়।

 

 

 

 

৪.অপ্পো ফাইন্ড এক্স

ফুল ডিসপ্লের ফোন বাজারে এনে চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে চমক দেখিয়েছিল অপ্পো। প্রতিষ্ঠানটির ফাইন্ড এক্স ফোনে ছিল স্লাইড ফ্রন্ট ক্যামেরা যা স্কলের পছন্দ হয়েছে এবং জনপ্রিয়তা পেয়েছে।৬.৪ ইঞ্চি বাঁকানো ওলেড পর্দা রয়েছে ডিভাইসটিতে। ২৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে,পেছনে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ও ২০ মেগাপিক্সেল ডুয়াল ক্যামেরা।

ডিভাইসটি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার এবং ৩.৫ মিলি মিলিমিটার হেডফোন জ্যাক। স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ প্রসেসর এবং আট গিগাবাইট র‍্যামের সঙ্গে ২৫৬ গিগাবাইট পর্যন্ত স্টোরেজ পাওয়া যাবে ডিভাইসটিতে। ৩৭৩০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ার ব্যাটারি আছে। ডিভাইসটির বাজার মূল্য বলা হয়েছে ৯৯৯ ইউরো।

 

৫ . হুয়াওয়ে মেট ২০ প্রো

দেশের বাজারে ১৮ নভেম্বর উদ্বোধন হবে হুয়াওয়ের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন মেট ২০ প্রো।বাংলাদেশের বাজারে বুকিং শুরু হয়েছে হুয়াওয়ের বছরের আলোচিত ফ্লাগশিপ স্মার্টফোন মেট-২০ প্রো। হুয়াওয়ে মেট ২০ প্রোর সেলফি ক্যামেরায় ইনফ্রারেড সেন্সর ও ডট প্রজেক্ট কম্পোনেন্ট আছে, যার মাধ্যমে থ্রিডি ফেস আনলক কাজ করে। সে জন্য নকশার প্রয়োজনে আইফোন টেনের মতো পর্দার ওপরের দিকে বড় নচ যুক্ত করা হয়েছে। মেট ২০ প্রোতে ৬.৩৯ ডিসপ্লে।স্মার্টফোনের ক্যামেরায় হুয়াওয়ে বরাবরই ভালো। মেট ২০ প্রোর পেছনে লাইকা ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ আছে। ৪০ মেগাপিক্সেলের মূল ক্যামেরার সঙ্গে থাকছে ২০ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড ও ৮ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো সেন্সর।ফোনের ক্যামেরা বিশ্লেষণের ওয়েবসাইট ডিএক্সওমার্কের র‍েটিংয়ে ১০৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষ স্থানে রয়েছে ফোনটি।

 

২০১৮ শেষ হয়ে ২০১৯ সাল চলে এলো।আরও নতুন এবং অত্যাধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে ২০১৯ সালে আসবে নতুন সব স্মার্টফোন যার কাজ বর্তমানে চলছে।মানুষের চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন প্রযুক্তি নির্ভর স্মার্টফোন বাজারে আনা হচ্ছে যা ২০১৯ সালে শীর্ষের জায়গা দখল করে নিবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.