ল্যাপটপ ঠাণ্ডা রাখার সেরা ৫টি উপায়!

বর্তমান সময়ে দ্রুত প্রযুক্তির প্রসারে মানুষ কখনো পোর্টেবল/হ্যান্ডক্যারি যন্ত্র আবার কখনো বড় যন্ত্রের দিকে আকর্ষিত হচ্ছে। তবে বিগত বছরে কম্পিউটার বাজারের দিকে খেয়াল করলে দেখা যায় যে, ব্যক্তিগত ব্যবহারে কম্পিউটার / ডেক্সটপ কম্পিউটারের চেয়ে ল্যাপটপ কেনার প্রবণতা অনেক বেশি। বিশেষ করে ছাত্র ছাত্রী ও নতুন কর্মজীবীদের মধ্যে এই প্রবণতা সবচেয়ে বেশি। এমনকি গেমাররাও সহজে বহনযোগ্য গেমিং ল্যাপটপ কিনতে বেশি আগ্রহী হচ্ছেন

তবে ডেক্সটপ কম্পিউটারের থেকে ল্যাপটপ ব্যবহারের সময় সবথেকে বড় ও হতাশাজনক যে সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় তা হচ্ছে ল্যাপটপ খুব দ্রুত গরম হয়ে যায়। এটা যেমন খুবই বিরক্তিকর সেই সাথে অসুবিধারও কারণ ল্যাপটপ বেশি গরম হলে তার প্রভাব এর বিভিন্ন যন্ত্রাংশের উপরে পড়ে। অর্থাৎ যন্ত্রাংশ গুলো খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়। যদিও ডেক্সটপ কম্পিউটারের তুলনায় ল্যাপটপ ঠাণ্ডা করতে বেশ কিছুটা বেগ পেতে হয়। তারপরেও এখানে ল্যাপটপ ঠাণ্ডা রাখার যে ৫ টি উপায় নিয়ে আলোচনা করবো সেগুলো মানলে ল্যাপটপ খুব বেশি গরম হয়ে যাওয়া থেকে আপনি রক্ষা করতে পারবেন।

সারসংক্ষেপঃ 

১. সমান জায়গায় রাখুন ২. চার্জ শেষে ক্যাবল খুলে ফেলা
৩. কুলিং প্যাড ব্যবহার ৪. ব্রাউজারের ট্যাব নিয়ন্ত্রণ
৫. অপ্রয়োজনীয় সফটওয়্যার বন্ধ রাখা ৬. হাইবারনেশন মোড
৭. হার্ড ড্রাইভ প্রায়োরিটি ব্যবহার ৮. ডিসপ্লে ব্রাইটনেস
৯. ব্যাটারি পরিষ্কার ১০. এক্সটারনাল ডিভাইস
১১. ব্যাকগ্রাউন্ড প্রোগ্রাম ১২. ওয়াইফাই অ্যাডাপ্টার বন্ধ রাখুন
১৩. বন্ধ করে ঠান্ডা করুন  

১। ল্যাপটপ টি সবসময় পরিস্কার রাখুন


আমরা যারা ঢাকা শহরে থাকি তাদের কাছে এই ধুলার ব্যাপারটি খুবই সাধারন একটা ব্যাপার। এখানে রাস্তা থেকে শুরু করে ঘর পর্যন্ত ধুলাবালিতে ভরপুর থাকে। এমনকি ঢাকা শহরের সব থেকে অভিজাত এলাকাতেও আপনি ধুলা পাবেন। আর এটা খুব স্বাভাবিক যে ল্যাপটপে যদি প্রচুর পরিমানে ধুলা বালি জমে তবে ল্যাপটপ ঠাণ্ডা করার জন্য যে কুলিং ফ্যান থাকে সেটি ঠিক মত কাজ করতে পারেনা ফলে ল্যাপটপ অধিক পরিমানে গরম হয়ে যায়। আপনি যতই ঘর বাড়ি পরিস্কার রাখেন না কেন, সামান্য হলেও ধুলা বালি ল্যাপটপে প্রবেশ করবেই। তাই এই সমস্যা থেকে সহজে মুক্তি পেতে একটি Compressed Air এর বোতল কিনে ফেলতে পারেন। ল্যাপটপটি বন্ধ করে বাইরে নিয়ে Compressed Air দিয়ে নোংরা জায়গা গুলি পরিস্কার করতে পারবেন। ল্যাপটপের প্যানেল খুলে নিতে পারেন তাহলে আরও ভাল ভাবে নোংরা জায়গাটা Compressed Air এর বাতাস দিয়ে পরিস্কার করতে পারবেন। তবে ল্যাপটপের যদি ওয়ারেন্টি থাকে তাহলে প্যানেল খোলার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকুন। আবার এমন জোরেও বাতাস দেয়া যাবেনা যেন ল্যাপটপের কোন যন্ত্রাংশ নষ্ট হয়ে যায়। Compressed Air দিয়ে পরিস্কার করার পর কিছু শুকনো তুলা দিয়ে বাকি অংশগুলো অথবা যেখানে পরিস্কার করা কঠিন সেখানে পরিস্কার করে নিন।

২। ল্যাপটপ টি টেবিল বা সমান্তরাল স্থানে রাখুন


সত্যি বলতে কি ল্যাপটপটি আপনি যদি টেবিল অথবা যেকোনো সমান্তরাল জায়গায় রেখে ব্যবহার করেন তাহলে ল্যাপটপ গরম হওয়ার সম্ভাবনা অনেকখানি কমে যায়। তবে এটা খুব কষ্টসাধ্য ব্যাপার কারন বেশিরভাগ মানুষ ল্যাপটপ কেনে আরাম করে বিছানায় বসে পায়ের উপরে অথবা পাশে রেখে ব্যবহার করার জন্য। তবে আপনি যদি ল্যাপটপ গরম হওয়া থেকে বাঁচাতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই এই অভ্যাস ছাড়তে হবে। ল্যাপটপ রাখার সব থেকে উপযুক্ত জায়গা সমান্তরাল ও শক্ত হতে হবে এমনকি সমান্তরাল কিন্তু নরম জায়গাতে রাখলেও ল্যাপটপ গরম হয়ে যাবে। তবে ল্যাপটপ মেঝেতে অথবা যেকোনো নিচু জায়গায় রেখে ব্যবহার করা ঠিক না সেটা সমান্তরাল হলেও, কারন এর ফলে ল্যাপটপের ভিতরে ময়লা জমে যাবে। তাই সবসময় চেষ্টা করবেন টেবিলে ব্যবহার করার জন্য।

৩। ল্যাপটপের কুলার ব্যবহার করা


এটা আমরা সবাই জানি ল্যাপটপ গরম হওয়া থেকে বাঁচাতে সব থেকে সহজ উপায় হচ্ছে কুলার ব্যবহার করা। ল্যাপটপের আঁটসাঁট ডিজাইনের কারনে ল্যাপটপ গরম হওয়া খুব স্বাভাবিক, কারন অল্প জায়গার কারনে ঠাণ্ডা রাখার জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ ল্যাপটপে দেয়া সম্ভব হয়না। তাই বাইরে থেকে আলাদা ভাবে ঠাণ্ডা করার ব্যবস্থা করতে হয়। বাজারে অনেক ধরনের ল্যাপটপ কুলার পাওয়া যায়। ল্যাপটপ কুলার হচ্ছে ল্যাপটপ রাখার জন্য একটি সমান্তরাল স্ট্যান্ড এর ভিতরে ফ্যান যুক্ত একটি যন্ত্র। ল্যাপটপ আপনি যেখানেই ব্যবহার করেন না কেন তার নিচে কুলার টি রেখে চালু করে দিলে এটি ল্যাপটপের পিছন দিক থেকে বাতাস সরবরাহ করে ফলে ল্যাপটপটি ঠাণ্ডা থাকে। এবং এগুলো যথেষ্ট ভাল কাজ করে।

৪। ল্যাপটপের সেটিংস পরিবর্তন করা


এটি একটু অন্যরকম শোনা গেলেও এটা সত্য যে আপনি ল্যাপটপের কিছু কিছু সেটিংস পরিবর্তন করে ল্যাপটপ টি বেশ ঠাণ্ডা রাখতে পারবেন। তবে এইটুকু নিশ্চিত করতে হবে যে আপনি যেই মানের গেম খেলা অথবা কাজের জন্য ল্যাপটপটি কিনেছেন সেই কাজ করার মত ক্ষমতা আপনার ল্যাপটপটির আছে কিনা। সেই সাথে ল্যাপটপের ড্রাইভার গুলি নিয়মিত পরীক্ষা করা ও আপডেট রাখতে হবে। স্ক্রিনের উজ্জলতা কমিয়ে দিতে পারেন ও কাজ করছেন না এমন প্লাগ-ইন গুলো বন্ধ করে দিতে পারেন। এছাড়া পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট সেটিংসে আপনি কিছু অপশন পাবেন যেখান থেকে কতখানি শক্তি ব্যবহৃত হবে সেটা নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন। এই সমস্ত সেটিংস পরিবর্তনের ফলে ল্যাপটপের তাপমাত্রা আসলেই কমছে কিনা সেটা পরীক্ষা করার জন্য SpeedFan নামের এই ফ্রি সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

৫। নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণ ও ব্যাটারি / চার্জার ব্যবস্থাপনা


অন্যান্য ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রাংশের মত ল্যাপটপও একেবারে সারাজীবনের জন্য বানানো হয়না। অন্যান্য যন্ত্রের মত ল্যাপটপের ভিতরের সব যন্ত্রাংশও একটি নির্দিষ্ট জীবনকাল পর্যন্ত কাজ করে। সুতরাং নিয়মিত যত্ন নেয়া অবশ্যই দরকার। নিয়মিত পরিস্কার রাখলে ও অন্যান্য যন্ত্রাংশের দিকে খেয়াল রাখলে ল্যাপটপ ঠাণ্ডা থাকবে। আরেকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে যেন ব্যাটারি ও চার্জারের অপব্যবহার না করা হয়। ল্যাপটপ খুব দ্রুত ক্ষতিগ্রস্ত হয় অধিক চার্জ দেয়ার ফলে। বেশিরভাগ ল্যাপটপে চার্জ দেয়ার জ্যাক টি মাদারবোর্ডের সামনের দিকে ঝালানো থাকে ফলে অধিক চার্জ দিলে এই গুলো ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। সবসময় চার্জের প্লাগ লাগানো থাকলে খুব তাড়াতাড়ি চার্জ দেয়ার জ্যাক নষ্ট হয়ে যায়। এবং যখন ল্যাপটপে চার্জ দেয়া হয়না তার থেকে ব্যাটারি যখন চার্জ হয় তখন ল্যাপটপ বেশি গরম হয়। তাই চেষ্টা করা উচিত সব কাজ শেষ করার পর ল্যাপটপ যখন ব্যবহার করা হয়না তখন চার্জ দেয়া। এবং খুব প্রয়োজনীয় নাহলে ব্যবহারের সময় চার্জ না দেয়া। এটি ঠিকমত মেনে চললে আপনার ল্যাপটপটি ঠাণ্ডা থাকবে।

আপনার ল্যাপটপটি যদি বেশি গরম হয়ে যায় এবং আপনি এটি ঠাণ্ডা রাখতে চান তাহলে উপরের ৫ টি পদ্ধতি আপনাকে সাহায্য করবে। তবে সাধারণত পুরনো ল্যাপটপ খুব দ্রুত গরম হয়ে যায় তাই সবসময় চেষ্টা করুন নতুন অথবা নতুন প্রযুক্তির ল্যাপটপ ব্যবহার করতে।

আপনার মতামত ...