স্যামসাং ও আইফোনের পাল্লায় হুয়াওয়ে পি৩০ প্রো

হুয়াওয়ে পি৩০ সিরিজের মোবাইল ক্যামেরায় উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা করেছে। তবে প্রযুক্তি প্রেমিদের বিশেষ নজর কেড়ে নিয়েছে শক্তিশালি ক্যামেরার ফোন হুয়াওয়ে পি৩০ প্রো

তাহলে কথা না বাড়িয়ে জেনে নেওয়া যাক, হুয়াওয়ে পি৩০ প্রো এর পুরো স্পেসিফিকেশনঃ

ডিসপ্লেঃ

ফোনটিতে ৬.৪৭ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস কার্ভ ওলেড ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। এর রেজুলেশন ১০৮০*২৩৪০ পিক্সেল এবং রেশিও ১৯.৫ঃ৯। স্ক্রিন থেকে বডির রেশিও ৮৮.৬%।

চিপসেটঃ

এতে হুয়াওয়ের নিজস্ব কিরিন ৯৮০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এর জিপিউ মালি-জি৭৬ এমপি১০।

আরো পড়ুনঃ আকর্ষণীয় ফিচারে হুয়াওয়ে পি৩০

র‍্যাম ও স্টোরেজঃ

  • ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • ৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • ৮ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • ৮ জিবি র‍্যাম ও ৫১২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ

যা মাইক্রো এসডি কার্ড দিয়ে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। মেমরি কার্ড সিম ২ স্লটে ব্যবহার করতে হবে।

ক্যামেরাঃ

ফোনটির মূল আকর্ষণের জায়গাটি হলো এর ক্যামেরা, যা দিয়ে মোবাইল ক্যামেরা নতুন এক যুগে প্রবেশ করেছে। ফোনটির পেছনে ব্যবহার করা হয়েছে থ্রিপল ক্যামেরা। মূল ক্যামেরাটি ৪০ (অ্যাপার্চার এফ/১.৬) মেগাপিক্সেলের ওয়াইড লেন্স। অন্য দুটি ক্যামেরা হলো ২০ (অ্যাপার্চার এফ/২.২) মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা ওয়াইড লেন্স এবং ৮ (অ্যাপার্চার এফ/৩.৪) মেগাপিক্সেলের পেরিস্কোপ ক্যামেরা লেন্স। এটি দিয়ে কোনো রকম ডিটেইল লস ছাড়াই ৫গুণ জুম করা যায়। সর্বোচ্চ ৫০ গুণ পর্যন্ত জুম করা যায়। ৫০ গুণ জুম করার পরও জকজকা ছবি তুলতে সক্ষম এই ফোনের ক্যামেরাটি। এটি দিয়ে ৪কে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

ফোনটির সামনে রয়েছে ৩২ (অ্যাপার্চার এফ/২.০) মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ক্যামেরা। সেলফি ক্যামেরা দিয়ে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও ধারণ করা যাবে।

ব্যাটারি ও ওএসঃ

ব্যাটারিতেও কোনো অংশে পিছিয়ে নেই হুয়াওয়ে পি৩০ প্রো, এতে ৪ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। রয়েছে ৪০ ওয়াটের ফাস্ট ব্যাটারি চার্জিং প্রযুক্তি, যা দিয়ে মাত্র ৩০ মিনিটে ব্যাটারি ৭০% চার্জ হবে। এছাড়া ফোনটিতে রয়েছে ১৫ ওয়াট ক্ষমতার ওয়্যারলেস ব্যাটারি চার্জিং প্রযুক্তি এবং রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং প্রযুক্তি।

এর অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই এবং হুয়াওয়ের নিজস্ব ইএমইউআই ৯.১ ব্যবহার করা হয়েছে।

আরো পড়ুনঃ সাশ্রয়ী মূল্যে হুয়াওয়ে পি৩০ লাইট

অন্যান্যঃ

ফোনটিতে হেডফোন জ্যাক এবং রেডিও নেই। এটিতে আইপি৬৮ রয়েছে, ফলে পানির নিচে ২ থেকে ৩০ মিনিট ফোনটি নিয়ে চুবানি খাইতে পারবেন😜। ফোনটিতে রয়েছে প্রায়ই সকল ধরণের সেন্সর। শক্তিশালি ক্যামেরার এই ফোনটির ওজন মাত্র ১৯২ গ্রাম।

রঙ ও দামঃ

অররা, অ্যাম্বার সানরাইজ, পার্ল হোয়াইট, ব্রেথিং ক্রিস্টাল, কালো রঙে ডিভাইসটি বাজারে পাওয়া যাবে।

হুয়াওয়ে পি৩০ প্রো এর মূল্য ধরা হয়েছেঃ

  • ৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ- ৫,৫৮৮ ইউয়ান (প্রায় ৭০ হাজার টাকা)
  • ৮ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ- ৬,২৮৮ ইউয়ান (৭৮,৬১২ টাকা)
  • ৮ জিবি র‍্যাম ও ৫১২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ- ৬,৯৮৮ ইউয়ান (৮৭,৩৬৫ টাকা)

২ এপ্রিল দেশে উন্মোচিত হবে এবং ৩ এপ্রিল থেকে প্রি-বুকিং করা যাবে। দেশের বাজারে দাম কেমন হবে তা জানানো হয়নি।

ইরফান

জানতে এবং জানাতে ভালোবাসি। তবে প্রযুক্তি নিয়ে জানার আগ্রহটা আরো বেশি তাই নিজে যা জানি তা তুলে ধরি টেকমাস্টার ব্লগে। প্রয়োজনে যোগাযোগঃ ফেসবুক টুইটার বিশেষ প্রয়োজেনে ইমেইল hi.mdirfan07@outlook.com

আপনার মতামত ...