গেম আসক্তি নিয়ন্ত্রনে কঠোর চীন

বৈজ্ঞানিক গবেষনার তথ্য মতে, মোবাইল গেম খেলায় উপকারিতার তুলনায় অপকারিতাই বেশি যা সর্ব সম্মত। সাথে শিশুদের স্বাস্থ্য ঝুঁকিও রয়েছে। বিশ্বের ২য় গেমিং মার্কেট, চীন সরকার, দেশের শিশু কিশোরদের অনলাইন গেম আসক্তি নিয়ন্ত্রনে কঠোর আইন প্রয়োগ করেছে

সম্প্রীতি দেশটির সরকার জানিয়েছে অনলাইন গেইম এর পিছনে মাসে ২৯ ডলারের বেশি খরচ করতে পারবে না ৮ থেকে ১৬ বছর বয়সী শিশুরা। ৫৮ ডলারের সুযোগ পাবে ১৬ থেকে ১৮ বয়সীরা।

আরও নিষিদ্ধ করেছে রাত ৮ টা থেকে সকাল ১০ টা পর্যন্ত অনলাইন গেম।  সপ্তাহিক ছুটির দিনে ৩ ঘণ্টা এছাড়া অন্যান্য কর্মদিবসে পাবে মাত্র ৯০ মিনিট গেম খেলার সুযোগ।

শিশু কিশোরদের গেম আসক্তি রুখতে চীনে টেনসেন্ট  গেমিং কোম্পানিও এর আগে নিয়েছিল কিছু পদক্ষেপ। তাদের নিজস্ব গেম গুলোর জন্য লিমিটেড টাইম করেছিল, ১২ বছর পর্যন্ত করেছিল ১ ঘণ্টা, ১৮ বছর বয়সীরা পেয়েছে ২ ঘণ্টা। বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভিডিও গেম কোম্পানির এ আইন, চীন সরকারের সম্মতিতে মানতে হয়েছিল  গেমারদের।

এছাড়াও কিছু গেমের বাইরে যেতে পারবে না গেমাররা। নতুন অনলাইন গেম আনুমোদনের ব্যাপারে অনেক অনীহা দেখাচ্ছে দেশটির সরকার। বুঝাই যাচ্ছে গেম আসক্তি কমাতে দেশটির সরকের বদ্ধ পরিকর।

One thought on “গেম আসক্তি নিয়ন্ত্রনে কঠোর চীন

  • November 11, 2019 at 2:28 pm
    Permalink

    it is a very important website for me. I get much information from your website

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published.