চলুন জানি ট্যালি ইআরপি ৯ (Tally.ERP 9) সফটওয়্যারের খুঁটিনাটি!

একাউন্টিং সফটওয়্যার জগতে একটি সুপরিচিত নাম হল ট্যালি ইআরপি ৯। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের হিসাব নিকাশের কাজ কম্পিউটারাইজড করে নিতে এই ইআরপি সফটওয়্যারটি এখন বিশ্বব্যাপী ব্যবহৃত হচ্ছে। আর ইআরপি সফটওয়্যার এর কথা যখনি আসে তখনি বেশ কিছু খুঁটিনাটি বিষয়ও চলে আসে যা জানা প্রয়োজন। খুঁটিনাটির কথা বলতে গেলে সবার আগে যা নিয়ে আলোচনা করতে হয় সেটা হল সফটওয়্যারের ফিচার।

বাজারের সবগুলো সফটওয়্যারের মধ্যে ট্যালি অনেক বেশি ফিচার সমৃদ্ধ এবং উপমহাদেশে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত সফটওয়্যার। ২০ বছর ধরে এটি ক্ষুদ্র ব্যবসা থেকে লার্জ কর্পোরেশনগুলোর হিসাবরক্ষণ চাহিদা পূর্ণ করে আসছে।

এই পোস্টটি লিখছি মূলত Tally.ERP 9 সফটওয়্যারটির ফিচারগুলো নিয়ে আলোচনা করার জন্য।

Tally Software in Bangladesh

ট্যালি ইআরপি ৯ এর ফিচারসমূহ:

হিসাবরক্ষণ:

একটি প্রতিষ্ঠানের সম্পূর্ণ হিসাবরক্ষণের জন্য যত সুবিধা থাকার প্রয়োজন তা সবই রয়েছে Tally.ERP 9 সফটওয়্যারটিতে। আগেই বলেছি ট্যালি ২০ বছর ধরে কয়েক মিলিয়ন প্রতিষ্ঠানের বাস্তবভিত্তিক চাহিদার উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে, তাই ছোট প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে গ্রুপ অব কোম্পানিগুলোর হিসাবরক্ষণেও ট্যালি সফটওয়্যারটি যথেষ্ট।

ইনভেনটরি:

ট্রেডিং প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যবসার সঙ্গে গোডাউনে থাকা মালামালের হিসাবরক্ষণ খুবই জরুরী। একে করে জানা যায় কোন কোন পণ্য প্রতিষ্ঠানে আছে এবং কি পরিমাণে আছে। এতে সহজে যেমন বিক্রয় সিদ্ধান্ত নেয়া যায় তেমনি প্রয়োজনীয় কি কি মালামাল প্রতিষ্ঠানে কিনে আনা বা উৎপাদন করা জরুরী সে সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া যায়।

পেরোল:

প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীদের বেতন হিসাব খুব সহজে করে দেয়ার জন্য ট্যালি ইআরপি ৯ সফটওয়্যারটিতে রয়েছে পেরোল হিসাবরক্ষণের সুবিধা। সহজেই স্যালারি শিট তৈরি করে তা মূল হিসাবের সঙ্গে সমন্বয় করার সুযোগ রয়েছে সফটওয়্যারটির মাধ্যমে।

কেন ট্যালি সেরা?

ট্যালি.ইআরপি ৯ সফটওয়্যারটি তৈরি করেছে ভারতের ট্যালি সল্যুশনস। দীর্ঘদিনের হিসাব রক্ষণ সফটওয়্যার তৈরির অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এ প্রতিষ্ঠানটির প্রায় অর্ধ-যুগের প্রচেষ্টায় তৈরি করা হয়েছে এ অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যারটি। একটি প্রতিষ্ঠানের সম্পূর্ণ হিসাবরক্ষণ, অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনা এবং অডিট সহ সম্পূর্ণ ফিচার এ সফটওয়্যারটিতে রয়েছে।

কারা সফটওয়্যারটি ব্যবহার করেন?

বিশ্বব্যাপী ২ কোটিরও বেশি ব্যবহারকারী ট্যালি অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহার করেন। বাংলাদেশের যেসব প্রতিষ্ঠান অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে তার মধ্যে ৭০% শতাংশই ট্যালি সফটওয়্যারের দখলে।

কেন এত জনপ্রিয় ট্যালি?

সফটওয়্যারটি এত জনপ্রিয়তা পাওয়ার কারণ কি? কারণ এটি ব্যবহারকারী বান্ধব, সহজেই যেকেউ এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে নিজ প্রতিষ্ঠানের হিসাব রাখতে পারেন এবং মাত্র কয়েক ক্লিকেই প্রতিষ্ঠানের হিসাব সংক্রান্ত যেকোনো তথ্য বের করা যায় সফটওয়্যারটির মাধ্যমে।

আজ এ পর্যন্তই। আশা করছি ট্যালি ইআরপি সফটওয়্যার নিয়ে শীঘ্রই ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল লিখবো। আপনাদের পরামর্শ জানাবেন, কিভাবে লিখলে সবার সুবিধা হয়। ধন্যবাদ কষ্ট করে ব্লগ টা পড়ার জন্য।

বি: দ্র: বাংলাদেশে ট্যালির পরিবেশক ট্যালি বাংলাদেশ (Tally Bangladesh)। ট্যালি সংক্রান্ত কোন সমস্যা কিংবা জিজ্ঞাসা থাকলে আমাকে বলতে পারেন। আশা করি সবাইকে হেল্প করতে পারবো।

One thought on “চলুন জানি ট্যালি ইআরপি ৯ (Tally.ERP 9) সফটওয়্যারের খুঁটিনাটি!

  • ফেব্রুয়ারী 5, 2015 at 3:20 অপরাহ্ন
    Permalink

    Thanks for your important information. I’ll be helpful

    Reply

আপনার মতামত ...