জাতীয় পরিচয়পত্র পেতে কি করবো?

“আমি ভোটার হয়েছি কিন্তু এখনো জাতীয় পরিচয়পত্র পাইনি, আমি তাহলে কিভাবে বায়োমেট্রিক নিবন্ধন করবো?”

যারা ভোটার হয়েছেন কিন্তু জাতীয় পরিচয়পত্র হাতে পাননি, তারাও সহজে রিভেরিফিকেশন করতে পারবেন, তাও আবার নিজের নামেই!

নতুন ভোটার জাতীয় পরিচয়পত্র পেতে কি করবো
কারণ আপনি হয়তো আইডি কার্ড এখনো হাতে পাননি, কিন্তু আপনার কার্ডের সফট কপি বা পিডিএফ ভার্সনের ফাইল ইতিমধ্যে তৈরী হয়ে আছে, যা শুধু ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিলেই হয়ে যাবে।
করণীয়:
১। জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত সরকারী ওয়েবসাইটে যান। http://services.nidw.gov.bd সরাসরি এখানে গেলেই হবে। সাইটটিতে ডেস্কটপ পিসি দিয়ে যেতে হবে। ফোনের কোন ব্রাউজারেই এটি ১০০% সঠিক ভাবে কাজ করে না।

এখানে একটি কথা অবশ্যই মনে রাখবেন; আগে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে, তারপর লগইন করা যাবে। সরাসরি ভোটার স্লিপ নাম্বার দিয়ে লগইন করতে চাইলে কাজ করবে না।
১। প্রথমে এখানে যান https://services.nidw.gov.bd/voter_center এবং ভোটার স্লিপ নাম্বার দিয়ে , জন্ম তারিখ ও ক্যাপচা সঠিকভাবে দিলেই আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার পাওয়া যাবে ।
২। সাইটে যাওয়ার পর খেয়াল করুন ঐ পেজে উপরের অংশের মেনুবারে ‘রেজিস্ট্রেশন’ লেখা আছে। সেখানে ক্লিক করুন । তাহলে একটি পেজ আসবে। এবার সব কিছু ঠিকঠাক পূরণ করে রেজিস্ট্রেশন করুন। পরিচয় পত্রের নাম্বার , মোবাইল নাম্বার এবং আপনার ভোটার এলাকার তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে ।
ঠিকানা: https://services.nidw.gov.bd/registration/new_registration
৩। রেজিস্ট্রেশন সফল হয়ে যাবার পর এখন লগইন করার পালা। লগইন করতে ‘লগইন’ লেখায় ক্লিক করুন। ওখানে সব তথ্য ঠিকঠাক দিন এবং ভেরিফিকেশনের জন্য মোবাইল নাম্বার বেছে নিন। তারপর বাটনে ক্লিক করলেই আপনার দেয়া মোবাইল নাম্বারে একটি কোড আসবে। মোবাইলে প্রাপ্ত কোডটি সাবমিট করুন।
৪। লগইন সফল হলেই পেয়ে যাবেন আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রে থাকা সব তথ্য।
৫। যদি আপনি আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের সফট কপি ডাউনলোড করতে চান তাহলে উপরে অবস্থিত ‘পরিচয় বিবরণী’ ক্লিক করুন।
৬। তাহলে আপনার NID কার্ডের সফটকপি ডাউনলোড হয়ে যাবে। এটি পিডিএফ ফরমেটে আছে, যা যেকোন পিডিএফ রিডার দিয়ে ওপেন করলেই দেখা যাবে।
৭। এখন সেটা প্রিন্ট আউট করে আপনার সিম রি-ভেরিফিকেশনের জন্য এর একটি ফটোকপি, সচল সিম আর এক কপি ছবি নিয়ে হাজির হলেই হবে।

READ  ভ্রমনে জরূরী প্রয়োজনীয় ৫ গ্যাজেট

এরপর ডিভাইসে আপনার ছাপ নেয়া হবে, যা মিলিয়ে দেখা হবে এনআইডি বিভাগে আপনার আগে দেয়া আঙুলের ছাপের সাথে, যেই ছাপ আপনি ভোটার হয়ার সময় নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে ছিলেন।
আপনার আঙ্গুলের ছাপ রিভেরিফিকেশন শেষ হলেই নিবন্ধন সফল ভাবে সমাপ্ত হবে ও আপনার ফোন নাম্বারে ‘নিবন্ধন সফল হয়েছে’ এমন একটি বার্তা আসবে।

10 thoughts on “জাতীয় পরিচয়পত্র পেতে কি করবো?

  • September 10, 2017 at 12:04 pm
    Permalink

    35944141

    Reply
  • June 12, 2017 at 10:18 pm
    Permalink

    ভাবিনি বাগদী

    Reply
  • February 27, 2017 at 5:38 pm
    Permalink

    আমি এখনও ভোটার হয়নি, কিভাবে ভোটার হবো, কবে থেকে করতে পারব, বিস্তারিত জানাবেন?

    Reply
  • December 11, 2016 at 9:49 pm
    Permalink

    নতুন কাড বানানো জন্য কি কি লাগবে

    Reply
  • October 13, 2016 at 7:49 pm
    Permalink

    ভাই ভোটার নাম্বার দিয়ে কি ভোটার আইডি কার্ড উঠানো যায়?
    আমাকে একটু জানাবেন।

    Reply
  • April 29, 2016 at 1:40 am
    Permalink

    vai votar number to dewa nai

    Reply
  • April 25, 2016 at 8:56 pm
    Permalink

    বর্তমান সময়ের জন্যে খুবই প্রয়োজনীয় পোস্ট…
    -ধন্যবাদ

    Reply
    • July 11, 2017 at 11:39 am
      Permalink

      কবে নাগাত আইডি কাডপাব খুব জরুরি

      Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published.