আইফোনের গুজবই সত্যি!

গত ৭ সেপ্টেম্বর ছিল অ্যাপল ভক্তদের গুজবনির্ভর আলোচনা ও দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসানের দিন। সান ফ্রান্সিসকোর বিল গ্রাহাম সিভিক অডিটোরিয়ামে আইফোনের পরবর্তী সংস্করণের দুটি ডিভাইস উন্মোচনের পরেই গুজবকে সরা না করা ভক্তদের ভুল ভাঙল। 

প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম বুধবার আইফোনের নতুন সংস্করণ উন্মোচন করা অ্যাপলের রেওয়াজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ কারণে সেপ্টেম্বর আসার আগে থেকেই নতুন আইফোন নিয়ে অ্যাপল ভক্তদের মাঝে নানা জল্পনা-কল্পনা ও গুজবের সৃষ্টি হয়। তার কোন ব্যতিক্রম হয়নি এবারো। জনপ্রিয় আইফোনের পরবর্তী দুইটি সংস্করণ নিয়ে উৎসাহ-উদ্দীপনা আর কৌতূহল  ছিল এবার দেখার মত। আর এতে নতুন মাত্রা যোগ করে দিয়েছিল হেডফোন জ্যাক ছাড়াই আইফোনের পরিকল্পনা। সর্বশেষ এ নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন অ্যাপলের সহপ্রতিষ্ঠাতা স্টিভ ওজনিয়াক। তিনি সতর্ক করে বলেছিলেন যে, আইফোনে হেডফোন জ্যাক না থাকা হবে একটি ভুল সিদ্ধান্ত। অ্যাপলকে এ পরিকল্পনা থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়েছিলেন। কিন্তু কোনো কিছুতেই কর্ণপাত করেনি আইফোন প্রস্তুতকারক অ্যাপল। মোবাইল ডিভাইসে দীর্ঘদিন প্রচলিত হেডফোন জ্যাক বাদ দিয়েই পরবর্তী দুই আইফোন উন্মোচন করা হয়েছে। তাই সামগ্রিকভাবে অ্যাপলের ৭ সেপ্টেম্বরের সম্মেলন ঘিরে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ, অ্যাপলভক্ত ও সমালোচকদের প্রত্যাশাও ছিল আকাশচুম্বী।

READ  সর্বশেষ টপ ১০ টেক নিউজ

সব গুজবের অবসান করে দিয়ে অ্যাপল ঘোষণা করে আইফোন ৭ এবং ৭ প্লাসের কোনটিতেই আর থাকছে না দীর্ঘদিন ধরে প্রচলিত ৩ দশমিক ৫ মিলিমিটারের হেডফোন জ্যাক। আইফোনের জায়গা বাঁচাতে এবং আইফোনকে নতুনত্ব দিতে অ্যাপল হেডফোন জ্যাকের বদলে নিয়ে এসেছে ওয়্যারলেস এয়ারপড। এখন প্রশ্ন উঠতে পারে ওয়্যারলেস হেডফোন আবার নতুন কী? এর আগেও বাজারে ওয়্যারলেস ব্লুটুথ হেডফোন দেখা গেছে। এরই ব্যাখা দিতে গিয়ে অ্যাপলের বিপনণ বিভাগের জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট ফিল শিলার জানান, তাদের এই ওয়্যারলেস প্রযুক্তি ব্লুটুথের চেয়ে কম শক্তি ব্যয় করে। নতুন এই এয়ারপডে আলাদা ‘ডব্লিউ ১’ চিপ ব্যবহার করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এই চিপের মাধ্যমে যোগাযোগের ক্ষেত্রে বাড়তি সুবিধা এবং ভাল মানের সাউন্ড পাওয়া যাবে বলে জানানো হয়। এছাড়াও এয়ারপডের বাইরে টাচ করে অ্যাপলের ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট সার্ভিস ‘সিরি’ ব্যবহার করা যাবে বলেও জানা যায়।

READ  ৩১৩ কোটি টাকার স্বর্ণ উদ্ধার করল অ্যাপল!

তাছাড়াও, ওয়্যারলেস প্রযুক্তি আনলেও আইফোনে লাইটেনিং পোর্টের হেডফোন ব্যবহার করা যাবে। এবং যারা ৩ পয়েন্ট ৫ এমএম হেডফোন ব্যবহার করতে চান তাদের জন্যও অ্যাপল রেখেছে লাইটেনিং পোর্ট থেকে ৩ পয়েন্ট ৫ এমএম কনভার্টার। এর জন্য ক্রেতার আলাদা কোন খরচ লাগবেনা, ফ্রীতেই দেওয়া হবে লাইটেনিং পোর্টের হেডফোন এবং কনভার্টার। তবে ওয়্যারলেস এয়ারপডের জন্য আপনাকে ব্যয় করতে হবে ১৫৯ মার্কিন ডলার।

 

মেহেদী হাসান পলাশ

Mehedi Hasan Polash ভালোবাসি প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে ও জানাতে, এই ভালো লাগা থেকেই যোগ দেওয়া প্রযুক্তি ব্লগিংয়ে। পাশে পেয়েছি টেকমাস্টার ব্লগ কমিউনিটি, দিকনির্দেশনা দিতে শ্রদ্ধেয় মেজবা উদ্দিন ভাই। ব্লগিং জগতের সবচেয়ে বড় যে পাওয়া তা হচ্ছে তথ্য, ব্লগিং এর জন্য প্রতিদিনই নিজেকে বেশি বেশি তথ্য জানতে হচ্ছে যা অনেকটা নেশার মত হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর জীবনটাই তো শেখার জন্য, জানার জন্য। বর্তমানে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে মার্কেটিং ও ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস উভয় বিষয়ে (বিবিএ) অধ্যায়নরত। প্রয়োজনে যোগাযোগ - মেইলঃ mpolash@icloud.com গুগল প্লাস

One thought on “আইফোনের গুজবই সত্যি!

  • September 27, 2016 at 3:22 pm
    Permalink

    ভালোবাসি প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে ও জানাতে, এই ভালো লাগা থেকেই যোগ দেওয়া প্রযুক্তি ব্লগিংয়ে।

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published.