সরকারী কাজে নিষিদ্ধ ব্যক্তিগত ইমেইল

সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা সরকারী কাজে এখন থেকে আর ব্যক্তিগত ইমেইল ব্যবহার করতে পারবেন না। ইমেইল ব্যবহার করতে সরকারের নিয়মনীতি অনুসরণ করতে হবে। সরকারী কাজে গোপনীয়তা এবং স্বচ্ছতার জন্য সরকার এই ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে।

এই ব্যবস্থা চালু হলে সরকারী কাজের জন্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা প্রত্যেক মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দফতর এবং সংস্থার নামসহ ডট বিডি ডোমেইনে ইমেইল আইডি তৈরি করতে হবে। সরকারী সকল কাজে তৈরি করা ইমেইল ব্যবহার করতে হবে। সরকারী কাজের বাইরে এই ইমেইল আইডি ব্যবহার করা যাবে না।

এব্যাপারে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাসের মন্তব্য করেন, বাইরের দেশের যে সব প্রতিষ্ঠান ই-মেইল সেবা দিয়ে থাকে তারা কিন্তু মেইল পড়তে পারে। যেমন জি-মেইলের হেডকোয়ার্টারে বসে প্রোগ্রামাররা কিন্তু আপনার মেইল দেখতে পারছে। আমাদের তথ্যগুলো যাতে তারা না পায় সেই জন্য এই উদ্যোগ। এই সংক্রান্ত নীতিমালার বিষয়ে আমরা মতামত নিচ্ছি। আমরা এই সার্ভিস প্রোভাইড করার জন্য তৈরি।

মন্ত্রণালয়সূত্র জানায়, খসড়া নীতিমালা অনুযায়ী, প্রত্যেক কর্মকর্তা ও কর্মচারী দুটি করে ই-মেইল আইডি খুলতে পারবেন। সেক্ষেত্রে একটি হবে তার পদবি দিয়ে এবং অন্যটি নাম দিয়ে।

তবে যোগাযোগের ক্ষেত্রেও আইডি দুটি দুই ধরনের কাজে ব্যবহার করতে হবে তাদের। আবার যেসব কর্মকর্তা অবসরে যাবেন বা চাকরির বয়স ২৫ বছর পূর্ণ হবে, তারা পরবর্তী এক বছর পর্যন্ত ওই নামের মেইল সরকারি যোগাযোগে ব্যবহার করতে পারবেন। এক বছর পর তাদের থেকে ওই আইডি ও পাসওয়ার্ড বাজেয়াপ্ত করবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

ইরফান

জানতে এবং জানাতে ভালোবাসি। তবে প্রযুক্তি নিয়ে জানার আগ্রহটা আরো বেশি তাই নিজে যা জানি তা তুলে ধরি টেকমাস্টার ব্লগ এবং টেকি নাউ। প্রয়োজনে যোগাযোগঃ ফেসবুক টুইটার বিশেষ প্রয়োজেনে ইমেইল hi.mdirfan07@outlook.com

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।