করোনা তথ্য ফেসবুকে

করোনাভাইরাস দ্বারা সৃষ্ট রোগ কোভিড-১৯ সম্পর্কে সঠিক তথ্য মিলবে ফেসবুকে। মার্ক জাকারবার্গ তার এক বিবৃতিতে এ সম্পর্কে ফেসবুকের গৃহিত পদক্ষেপ সমূহ আলোচনায় আনেন।

বর্তমানে মহামারী করোনাভাইরাস নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ এর মাধ্যম ফেসবুক বেশ সরব। ফেসবুক ব্যাবহারকরে একজন ব্যাক্তি চায়না, জাপান, সিঙ্গাপুরসহ অন্যান্য দেশে এ থাকা বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করে সেসব দেশের পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে পারছে।

করোনাভাইরাস এর সর্বশেষ পরিস্থিতির যে তথ্যগুলো ফেসবুকে মিলছে তা অনেক ক্ষেত্রেই ভুল প্রমাণিত হচ্ছে।

ফেসবুকের মাধ্যমে যেন ভুল তথ্য ছড়াতে না পারে সে লক্ষ্যে কতক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে জাকারর্বাগ ও চ্যান জাকারর্বাগ ইনিশিয়েটিভ । এ বিষয়ক বার্তায় জাকারবার্গ বলেন,

ফেসবুক মূলত তিনটি ক্ষেত্রে আলোকপাত করছে

  • ১. সঠিক তথ্য সরবরাহ করা।
    ২. ভুল তথ্য বন্ধ করা।
    ৩. গবেষণার জন্য তথ্য সরবরাহ করা।”

জাকারবার্গ লিখেছেন যে বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য সংস্থা দ্বারা চিহ্নিত করা ভুল তথ্যগুলো ফেসবুক সরিয়ে দিচ্ছে। মানুষের মনে ভয়ের সঞ্চার করে এরকম ভিডিওগুলো ব্লক করা হচ্ছে।

করোনাভাইরাস নিয়ে যে কোনো ব্যাক্তি যদি কোনো কিছু ফেসবুকে অনুসন্ধান করে তবে তাকে পপ আপ নোটিফিকেশনের মাধ্যমে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও তার দেশের জাতীয় স্বাস্থ্য সংস্থার সাথে যুক্ত করে দেওয়া হচ্ছে। যেন ওই ব্যাক্তিটি সঠিক তথ্যটি জানতে পারেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও ইউনিসেফ এর মত স্বাস্থ্য সংস্থাগুলো করোনাভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করতে ফেসবুকে বিনামুল্যে বিজ্ঞাপন দিতে পারছে বলে জানান মার্ক জাকার্বাগ।
এই রোগের বিস্তার রোধে চিকিৎসা সংক্রান্ত প্রচেষ্টায় সহায়তা করছে চ্যান জাকারবার্গ ইনিশিয়েটিভের প্রযুক্তি। গেটস ফাউন্ডেশনের সাথে কাজ করে, দুটি সংস্থার অর্থায়নে গবেষকরা ভাইরাসটির জিনোমকে পুরোপুরি এক সিক্যুয়েন্স করতে সক্ষম হয়েছিলেন যা করোনাভাইরাস দ্বারা কোভিড -১৯ রোগে সংক্রামিত লোকদের সনাক্তকরণ সহজ করে তোলে।

এছাড়া, করোনাভাইরাস কীভাবে ফুসফুসকে ক্ষতিগ্রস্থ করে এবং ভাইরাসজনিত কারণে ফুসফুসের ক্ষয়ক্ষতি কমানো যেতে পারে এমন সম্ভাব্য চিকিৎসাগুলি সনাক্ত করতে গবেষকগণ চ্যান জাকারবার্গের বায়োহাবে উন্নয়নকৃত অ্যাটলাস সেলের ব্যাবহার করছে।
করোনাভাইরাস সম্পর্কিত আরো আপডেটগুলো শীঘ্রই পাওয়া যাবে জানিয়েছেন জাকারবার্গ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।