ডব্লিউডি’র ৫ টিবি মাই পাসপোর্ট

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ওয়েস্টার্ন ডিজিটাল-ডব্লিউডি গতবছর বাজারে নিয়ে এসেছে একটি ৫ টিবি (টেরাবাইট) মাই পাসপোর্ট। এটি মূলত এক্সটার্নাল হার্ডড্রাইভ হিসেবে কাজ করে।
এই পাসপোর্টে যতটা সম্ভব ওজন ও বাল্ক কমানোর চেষ্টা করা হয়েছে। ফলে অন্যান্য পাসপোর্ট এর তুলনায় এটি বেশি বহনযোগ্য হয়েছে।
হার্ডড্রাইভটির সামনের অংশে স্ট্রিপড প্যাটার্ন ডিজাইন রয়েছে। পকেটিবিলিটির জন্য এর সাইড এবং কোণগুলো বৃত্তাকার করা হয়েছে। এর ফলে সহজেই ড্রাইভটি পকেটে ঢুকানো বা বের করা যায়। এই ড্রাইভটি ওয়েস্টার্ন ডিজিটাল এর মাই পাসপোর্ট গো সিরিজের সাথে অনেকাংশে মিলে যায়।
ওয়েস্টার্ন ডিজিটাল এর উন্মোচনকৃত অন্যান্য মাই পাসপোর্ট এর রঙের তুলনায় প্রায় অর্ধেক রঙের বিকল্পে এই পাসপোর্টটি উন্মোচন করা হয়েছে। লাল, নীল ও কালো এই তিনটি রঙে পাওয়া যাবে এই ড্রাইভ। ড্রাইভটির বহিরাবরণ এ ব্যাবহার করা হয়েছে একটি ম্যাট রঙের প্লাস্টিক।
ওয়েস্টার্ন ডিজিটাল এর ১ টেরাবাইট ও ২ টেরাবাইটের পাসপোর্টও রয়েছে। এই সংস্করণগুলি ১১.১৫ মিমি পুরু এবং ওজনে ১২০ গ্রাম। ওয়েস্টার্ন ডিজিটাল এর সবচেয়ে বেশি স্টোরেজ সম্পন্ন ড্রাইভটিবহল ৫ টেরাবাইটের। এটি ১৯.১৫ মিমি পুরু এবং ওজন ২১০ গ্রাম।
৫ টেরাবাইট ২০১৯ সংস্করণের ড্রাইভটি এনটিএফএস ফাইল সিস্টেমে ফরমাট করা থাকে। এতে প্রায় ৪৬৫৭.৪৭ গিগাবাইট পর্যন্ত স্টোরেজ পাওয়া যায়। ড্রাইভটির রাইটিং স্পিড ১২৫.৬ এমবিপিস এবং রিডিং স্পিড ১৩৩.৩ এমবিপিএস পাওয়া গেছে। এভিল স্টোরেজ বেঞ্চমার্ক এর প্রতিবেদন অনুসারে রাইটিং স্পিড ১৫২.৩১ এমবিপিস এবং রিডিং স্পিড ২১১.৪৫ এমবিপিএস পাওয়া গেছে।
ড্রাইভটিতে ৫ এমবি সাইজের ১ মিলিয়ন এমপি৩ গান বা ছবি অথবা ২৫০০ ঘন্টা এইচডি ভিডিও রাখা যাবে।
এই পাসপোর্টে দ্রুত গতি না পাওয়া গেলেও একই দামে একটি এসএসডি স্টোরেজের তুলনায় প্রায় পাঁচগুন স্টোরেজ পাওয়া যায়। বাল্ক স্থানান্তর এবং ব্যাকআপ এর জন্য এই পাসপোর্ট একটি ভাল পছন্দ হতে পারে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।