অনলাইন মিটিং এর ৫ অ্যাপ

বিশ্বে করোনাভাইরাসের সংক্রমন মোকাবেলায় মানুষ নিজ নিজ বাসায় কোয়ার্টাইনে রয়েছেন। এসময় বাসায় বসেই অনলাইনে সেরে নেওয়া যায় অফিসের কাজ ।

মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা প্রেরণ ও গ্রহন, কোন কোন ক্ষেত্রে লাইভ ভিডিও শেয়ারিং করা গেলেও অনলাইনে মিটিং বা বড় ধরনের জমায়েত সম্ভব হয় না।

অনলাইনে মিটিং করতে পারেন স্কাইপ, হ্যাংআউট এর মত অ্যাপ বা সফটয়্যারগুলো দিয়ে। এই লেখাতে এমন ৫ টি অ্যাপ বা সফটয়্যার এর কথা আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব।

গুগল ডুয়ো

স্মার্টফোনে গ্রুপ ভিডিও কলের জন্য একটি অন্যতম অ্যাপ হচ্ছে গুগল ডুয়ো। এই অ্যাপ এর ফাংশনগুলো খুবই সরল এবং অ্যাপটি ব্যাবহার করাও খুব সহজ। গুগল ডুয়ো এর মাধ্যমে সর্বোচ্চ ৮ জনের সাথে একই সময়ে ভিডিও কনফারেন্স করা যায়।

যারা সাধারণত প্রযুক্তি সম্পর্কে কম বোঝেন তাদের জন্য এই অ্যাপটি কর্যকরী। অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস, কম্পিউটার এবং ওয়েব সংস্করনে রয়েছে গুগল ডুয়ো।

অভো

অভো একটি ফ্রি অ্যাপ্লিকেশন। এখানে সর্বোচ্চ ১২ জনের সাথে একই সময়ে ভিডিও কনফারেন্স করা সম্ভব হয়। এটি ব্যাবহার করার মাধ্যমে ভিডিও রেকর্ডিং করা যায়। ভিডিও কনফারেন্সে থাকা সবাই মিলে একসাথে ইউটিউবে ভিডিও দেখা সম্ভব হয় এই অ্যাপ এর মাধ্যমে।

অভো এর প্রিমিয়াম ভার্সনও রয়েছে যেখানে বিজ্ঞাপন ব্লক করা যায়। অভো অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস, কম্পিউটার, আমাজন ফায়ার এবং ওয়েব সংস্করনে পাওয়া যায়।

হ্যাংআউট

গ্রুপ ভিডিও কলিং এর জন্য হ্যাংআউট অত্যন্ত কার্যকরী একটি অ্যাপ। বিশেষ করে স্মার্টফোনের জন্য। ভিডিও কলে একই সময়ে ১০ জন কথা বলার জন্য হ্যাংআউট ব্যাবহার করা যায়। মিটিং এ সবার উপস্থিতি নিশ্চিতের লক্ষ্যে হ্যাংআউটে একটি লিংক তৈরি করা যাইয় যার মাধ্যমে অন্যান্যরা অনলাইন মিটিং এ যোগ দিতে পারেন।

হ্যাংআউটে ৭২০ পিক্সেল রেজুলেশন পর্যন্ত ভিডিও কলিং করা সম্ভব হয়। অ্যাপটি উইন্ডোজ, ম্যাক, আইওএস, লিনাক্সের এবং ওয়েব সংস্করনে রয়েছে।

স্কাইপ

স্কাইপ দিয়ে গ্রুপ ভয়েস কলে ২৫ জন পর্যন্ত এবং ভিডিও কনফারেন্সে ১০ জন পর্যন্ত অংশগ্রহণ করতে পারে। স্কাইপ একটি ফ্রি অ্যাপ। তবে প্রিমিয়াম ভার্সনে ২৫০ জন পর্যন্ত ভিডিও কলে সংযুক্ত হতে পারে।

স্কাইপ উইন্ডোজ, ম্যাক, লিনাক্স, অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস, উইন্ডোজ ফোন, এবং এক্সবক্স ওয়ান এর অপারেটিং সিস্টেমে কাজ করে।

ফ্রিকনফারেন্স

ফ্রিকনফারেন্স অ্যাপটি ব্যাবসায়িক কাজে বেশি ব্যাবত হয়। ফ্রিকনফারেন্স দিয়ে কম খরচে আন্তর্জাতিক কল করা যায়। এটিতে ওয়েটিং টিউন ঠিক করা যায়। পিসি ও মোবাইল দুই ক্ষেত্রেই এটি কাজ করতে পারে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।