করোনা’য় আয় বেড়েছে অ্যাপল’র

বিশ্বজুড়ে চলা করোনাভাইরাস এর প্রকোপের মধ্যেও আয় বেড়েছে অন্যতম সেরা প্রযুক্তি পন্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপল এর। প্রতিষ্ঠানটির প্রকাশিত অয়ের দ্বিতীয় প্রান্তিকের প্রতিবেনে দেখা যায় এটি।

মহামারী করোনাভাইরাসের প্রকোপে বিরূপ প্রভাব পড়ে অ্যাপল এর উৎপাদন ও সাপ্লাই চেইন এ। ব্লুমবার্গের প্রতিবেদন অনুসারে এই পরিস্থিতে বিশ্লেষকরা অ্যাপল এর আয় ৪৫৪০.৩১ বিলিয়ন টাকা প্রত্যাশা করেছিলেন। সেখানে অ্যাপল এর আয় হয়েছে ৪৯২০.০৮ টাকা। যা গত বছরের তুলনায় প্রায় ১ শতাংশ বেশি।

অ্যাপল এর সিইও টিম কুক বলেন,

এই কঠিন পরিস্থিতিতে একে অপরের সাথে যুক্ত থাকতে মানুষ আমাদের পন্য ব্যবহার করছে। বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের প্রভাব সত্ত্বেও আমাদের ওয়্যারেবল পন্যগুলোর বিক্রি বেড়েছে এবং এ যাবৎ কালের সেরা রেকর্ড হয়েছে ওয়্যারেবল পন্যের এই প্রান্তিকে।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে চীনে লকডাউন চলাকালে অ্যাপলের সবগুলো কারখানা বন্ধ ছিল। আইফোন এর উৎপাদন ও সরবরাহ কমে যাওয়ায় ফেব্রুয়ারিতে অ্যাপল বিনিয়োগকারীদের ২য় এবছরের প্রান্তিকের আয়ের ব্যপারে সতর্ক করে।

আইফোন ও অন্যান্য হার্ডওয়্যার পন্যে অ্যাপল এর আয় কমলেও সেই স্থান পূরন করেছে এর ওয়্যারেবল পন্যগুলো। এয়ারপডস এবং অ্যাপল ওয়াচ এর মত পন্য অ্যাপল এর আয়কে ২৩ শতাংশ প্রবৃদ্ধিতে নিয়েছে।

চায়না এবং দক্ষিণ কোরিয়া বাদে অন্যান্য দেশের রিটেইল স্টোরগুলো খুলতে শুরু করেছে অ্যাপল। পরিস্থিতি বিবেচনায় সামাজিক দূরত্বের নির্দেশনা মেনে আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্য সবগুলো রিটেইল স্টোর খোলার চিন্তা করছে অ্যাপল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।