করোনা মোকাবেলায় ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বার ‘মুক্তি ২০’

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বার বা জীবানুনাশক প্রকোষ্ঠ তৈরি করেছে বাংলাদেশের ৯ জন তরুন তরুনীর এক দল। তারা এই ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বার তৈরি ও ব্যবহার এর প্রকল্পের নাম দিয়েছেন “মুক্তি ২০”।

করোনাভাইরাস রোগে আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিতে সবচেয়ে বেশি ঝুকিতে আছে হাসপাতাল, সেখানে কর্মরত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। রোগীর সেবা করতে গিয়ে তারা যেন আক্রান্ত না হন সে কারনে তারা ব্যাক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী বা পিপিই ব্যবহার করে থাকেন।

চাহিদার তুলনায় ব্যাক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী বা পিপিই যোগান কম থাকয় এটি যেন একাধিকবার ব্যবহার করা যায় সে চিন্তা থেকেই ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বার তৈরির উদ্যোগ ৯ তরুন তরুনীর।

ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বার তৈরির মূল পরিকল্পনাকারী স্থপতি তৌহিদুল রিফাত বলেন, এই ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বার এ প্রবেশ করে করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ফ্রন্টলাইনে থাকা চিকিৎসক ও স্বাস্থকর্মীরা ১৫/২০ সেকেন্ডের মধ্যে নিজেদের পিপিই সম্পূর্ণভাবে জীবানুমুক্ত করতে পারবেন।

তাদের দলের অন্য একজন, ইঞ্জিনিয়ার শিহাব উদ্দিন সানি জানান, এই ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বারটি বিভিন্ন হাসপাতালে স্থাপনের পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যোগেও যে কেউ তার প্রতিষ্ঠান বা বাড়িতে স্থাপন করতে পারবেন।

একজন ব্যাক্তি চেম্বারে প্রবেশ করে ঘুরে ঘুরে তার পিপিই বা কাপড় জীবানুমুক্ত করতে পারবে। ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বারটিতে ৩৬০ ডিগ্রীতে জীবানুনাশক তরল উচ্চ চাপে স্প্রে করা হয়। তরলটি যেন সঠিকভাবে সম্পূর্ণরূপে জীবানু ধ্বংস করতে পারে সে লক্ষ্যে তাদের দলের ফার্মাসিস্ট ও ক্যামিস্টরা কাজ করছে।

ইতোমধ্যে ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বারটির অনুমোদনের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে যোগাযোগ করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় ট্রায়ালের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন ভবনের মূল গেটে ১ টি এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় এর ফিভার ইউনিটে ১ টি মুক্তি ২০ ডিজইনফেকট্যান্ট চেম্বার স্থাপন করা হয়েছে বলে জানায় উদ্যোক্তরা।

মুক্তি ২০ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রজেক্টঃ "মুক্তি ২০" ডিসইনফেকশন/স্টেরিলাইজেশন চেম্বারকরোনা ভাইরাস প্রতিরোধে এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে চিকিৎসকরা। তাদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি রোধ করতে বিভিন্ন পেশায় যুক্ত একদল তরুণ "মুক্তি ২০" নামে বডি ডিজইনফেকশন চেম্বার প্রস্তুত করেছে। যে চেম্বারে প্রবেশ করে একজন চিকিৎসক তার ব্যবহৃত পিপিই সহজেই জীবানুমুক্ত করতে পারবেন। এরই মধ্যে এই চেম্বার বিশ্বের অল্প কিছু দেশে প্রস্তুত করে ব্যবহার শুরু করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডিজইনফেকশন ক্যামিকেল তৈরি ফর্মুলা অনুসরণ করেই প্রস্তুত করা হয়েছে মুক্তি ২০। এর বিশেষত্ব হচ্ছে কম খরচে স্থানীয় মালামাল ব্যবহার করে এটি প্রস্তুত করা যায় সহজেই। “মুক্তি ২০” টিমের এই মুহুর্তের উদ্দেশ্য হচ্ছে যে সমস্ত হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে সেখানে এটি বিনামূল্যে বিতরণ করা। এছাড়া বেসরকারি হাসপাতাল, ব্যাংক, গণমাধ্যমের কার্যালয়, পুলিশ স্টেশন, রেলস্টেশন, বাস টার্মিনালে শুধুমাত্র প্রস্তুত বাবদ খরচ নিয়ে এটি তৈরি করে দেয়া৷ এছাড়া যারাই এটি নিজ উদ্যোগে প্রস্তুত করতে ইচ্ছুক তাদেরই এর ফর্মুলা জানিয়ে সব ধরনের সহযোগিতা করতে ইচ্ছুক “মুক্তি ২০” টিম। করোনা মোকাবেলায় মুক্তি ২০ টিমকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার আহবান জানাচ্ছি।যোগাযোগ করুন মুক্তি ২০'র ফেসবুক পেইজে। To fight Corona, Project: "MUKTI 20" Disinfection/ Sterilization chamber…Medical Officers & staffs working in frontline with high risk to resist Corona Virus. To reduce their health risk one group of youths of Dhaka, Bangladesh from different profession made a BODY DISINFECTION CHAMBER named “MUKTI 20” (Salvation). By entering in the chamber any medical personnel can easily disinfect his/her PPE. In some countries has already started using this kind of chamber. Disinfecting solution is producing according to the disinfection chemical formula of World Health Organizations (WHO). Specialties of this chamber are it is produced from local equipment’s in a very low producing cost with portable functionality. At this moment main target of “MUKTI 20” team is to supply this chamber in the government specialized hospitals for Corona effected people in free of cost. Also to produce for different places like private hospitals, Bank, Media offices, Police stations, Railway stations, Bus terminals in just production cost. Beside that if anyone wants to produce by themselves team “MUKTI 20” will provide their technical support to them. To fight against corona virus we team “MUKTI 20” wants all of your help.Contact @facebook page Link: MUKTI 20 MUKTI 20@messenger inbox: m.me/mukti20bd

Gepostet von MUKTI 20 am Samstag, 28. März 2020

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।