স্লো ইন্টেরনেট ২১-২৩ সেপ্টেম্বর

আগামী ২১-২৩ সেপ্টেম্বর বঙ্গোপসাগরে সাবমেরিন ক্যাবলের রিপিটার মেরামত এর কাজ এর জন দেশে ইন্টারনেটের গতি কমে যেতে পারে!

তবে সে সময় বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে ২য় সাবমেরিন ক্যাবল হতে ব্যান্ডউইথ সরবরাহ করে ইন্টারনেট সেবা রাখার চেষ্টা করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেডের (বিএসসিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মনোয়ার হোসেন।

এক টেক পোর্টালকে বলেন,

সাবমেরিন ক্যাবলের রিপিটার মেরামত একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। অনেকদিন হয়ে গেছে মেরামত করা হয় না। এ মাসের ৩ দিন ১টি নির্দিষ্ট সময়ে সি-মি-উই-ফোর-এর রিপিটার মেরামতের কাজ চলবে। মেরামতের সময় সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হবে। তখন ব্যাকআপ হিসেবে ২য় সাবমেরিন ক্যাবল (সি-মি-উই-৫) থেকে ব্যান্ডউইথ সরবাহ করে ইন্টারনেট সেবা স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করা হবে।

তাছাড়াও, সি-মি-উই-৪ সাবমেরিন ক্যাবল ১২৬০ কিলোমিটার সুদীর্ঘ। এই দীর্ঘ ক্যাবল পথের বঙ্গোপসাগরের অংশে রিপিটার পরিবর্তন করা হবে। বেসরকারি আইটিসি প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যান্ডউইথ দিয়েও এ সময়ে ইন্টারনেট সেবা সংক্রান্ত সমস্যা দূর করা হবে।

সি-মি-উই-৪ সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে এখন বাংলাদেশ পাচ্ছে ৩০০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ। এরমধ্যে ব্যবহার হচ্ছে ২৫০ জিবিপিএস, যা সরবরাহ করছে বিএসসিসিএল। তবে দেশে মোট ব্যান্ডউইথ ব্যবহারের পরিমাণ ৪৪০ জিবিপিএস। অন্যদিকে ৬টি আইটিসি(ইন্টারন্যাশনাল টেরেস্ট্রিয়াল ক্যাবল) প্রতিষ্ঠান আমদানি করছে ১৫০ জিবিপিএস এর বেশি ব্যান্ডউইথ।

আইএসপিএবির সভাপতি এম এ হাকিম বলেন,

আইটিসি তো রয়েছেই। আর কিছু ব্যাকআপ পাওয়া যাবে বিএসসিসিএল থেকে। ফলে কোনও সমস্যা হবে না। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে রাউটিংয়ে সমস্যা হতে পারে। ফলে গতি ধীর হওয়ার একটা আশঙ্কা আছে।

তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন

আপনার মতামত ...