আপনি কি ফেইসবুক আসক্ত? সেরা ১০ নিরাময়

আপনি কি ফেইসবুক আসক্ত? কোন ভাবেই ফেইসবুক ছাড়তে পারছেন না? আপনার কি সারাদিন ঘুম নাই, খাওয়া নাই, কাজে মন নাই, পড়াশুনায় মন নাই,  শুধু ফেইসবুকে থাকতে ইচ্ছে হয়? এবং আপনি কি এ থেকে পরিত্রাণ চান? তাহলে আজই আপনার জন্য রয়েছে এই ১০ টি নিরাময় টিপস। যা আপনাকে ফেইসবুক থেকে দুরে রেখে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনবে। চলুন দেখে আসা যাক কি সেই ১০ টি টিপস।

১। মোবাইল ডাটা কিংবা ওয়াইফাই অফ রাখুন


সকালে ঘুম থেকে উঠে কখনো মোবাইল ডাটা অন করবেন না। ঘুম থেকে উথে সোজা ওয়াশ রুমে চলে যান ফ্রেশ হতে। কারন আপনি যদি ঘুম থেকে উঠেই মোবাইল ডাটা অন করেন তাহলে আপনার অবশ্যই  ফেইসবুকের দিকে মনোযোগ যাবে। এবং একবার যদি আপনি ঘুম থেকে উঠে বিছানায় থেকেই ফেইসবুকে যান তাহলে আপনার অন্তত ১ ঘণ্টা জীবন থেকে হারাবেন।

২। খাবার সময় মোবাইল দূরে রাখুন


খেতে বসলে কখনো মোবাইল হাতে নিয়ে বসবেন না। যখন খেতে বসবেন তখন মোবাইল হয় ব্যাগে অথবা পকেটে অথবা একটু দুরে রাখুন। কারন খাওয়ার সময় ফেইসবুকে থাকলে আপনার খিদে মাটি হয়ে যাবে। এবং আপনি এক সময় খাওয়ায় অনিয়মিত হয়ে জাবেন। ফল স্বরূপ অসুস্থ হয়ে যাবেন।

৩। পড়াশোনায় দূরত্ব বজায়


আপনি যখন পড়তে বসবেন তখন আপনার মোবাইলটি আপনার থেকে ১০হাত দুরে রাখুন। কারন আপনি যদি ফেইসবুকে আসক্ত হন আপনার মোবাইল দেখলেই পড়াশুনা বাদ দিয়ে আপনার ফেইসবুকের দিকে মন টানবে। ফলে পড়াশুনা গোল্লায় উঠবে।

৪। কথোপকথনে মনযোগ দিন


যখন ফ্রেন্ডসরা একসা থে আড্ডা দেন তখন আপনাদের ভিতরই এমন অনেকে থাকে যে আপনাদের সাথে আড্ডা দিতে এসে মোবাইল নিতে ব্যস্ত। কারন তখনো সে ফেইসবুকেই নিজের সময় অপচয় করছে। এতে করে বন্ধুদের মাঝে সম্পর্ক খারাপ হয়। তাই যখন আপনারা বন্ধুরা আড্ডা দিবেন মোবাইল ডাটা বন্ধ রাখুন। সম্পূর্ণ চেষ্টা করুন ফেইসবুক থেকে মন দুরে রাখতে।

৫। ফেসবুক নোটিফিকেশন অফ করাঃ


আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ কারন হল ফেইসবুক নোটিফিকেশান অন রাখা। আপনি যদি ফেইসবুকের নোটিফিকেশান অন রাখেন তাহলে কোন কারনে আপনার মোবাইল, কম্পিউটার, ল্যাপটপের ডাটা অন করলে আপনার ফেইসবুক আপনাকে নোটিফিকেশান দিবে। তখন আপনার মন অবশ্যই চাইবে একটু দেখে আসতে কিসের নোটিফিকেশান আসলো। তারপর চাইলেও আর খুব তাড়াতাড়ি আপনার মন ফেইসবুক থেকে সড়াতে পারবেন না।

৬। কাজে ব্যাস্ত থাকুনঃ


সারাদিন বিভিন্ন কাজে নিজেকে ব্যস্ত রাখুন। নিজের সময়কে কাজে লাগানো যায় এবং যা করলে আপনার উপকার হবে এমন কিছু বেছে নিন এবং সেগুলো নিয়ে সবসময় ব্যস্ত থাকার চেষ্টা করুন। দেখবেন আপনার মন ফেইসবুক থেকে অনেক্তা দুরে চলে যাবে।

৭। একা কম থাকুনঃ


কখনো বেশিক্ষণ একা একা থাকবেন না। মানুষের ভিতর থাকার চেষ্টা করুন। পরিবার, বন্ধু, সহপাঠীদের নিয়ে সময় কাটান। কেননা আপনি যদি একাকি সময় কাটান তখন আপনার অলস সময় কাটানোর জন্য ফেইসবুকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা থাকতে মন চাইবে। এবং একটা সময় আপনি চাইলেই আর ফেইসবুক থেকে দুরে থাকতে পারবেন না।

৮। ঘুমানোর ২ ঘন্টা আগে টিভি মোবাইল দেখা বন্ধ করুনঃ


রাতে ঘুমানর সময় যথা সম্ভব চেষ্টা করুন মোবাইল ডাটা বন্ধ রাখতে, এবং খুব তাড়াতাড়ি বাতি নিভিয়ে শুয়ে পড়েন। আপনি যতটা সময় অপেক্ষা করবেন ঘুমানোর জন্য আপনার মন তত ফেইসবুকের দিকেই যেতে থাকবে। কিছুদিন পর দেখবেন আর আপনার ঠিক মতো ঘুম হচ্ছেনা, চখের নিচে কাল দাগ পড়েছে। কোন কাজে এবং পড়াশুনায় মন বসাতে পারছেন না।

৯। সময় কাজে লাগানঃ


সময়কে কাজে লাগাতে চেষ্টা করুন। আপনি যেই সময়তা ফেইসবুকে কাটাবেন সেই সময়টা নিজের সকল গুরুত্বপূর্ণ কাজ করতে পারেন, নতুন কিছু শিখতে পারেন। বন্ধুদের সাথে গ্রুপ স্টাডি করতে পারেন। এমন কিছু করেন যা করলে আপনার সময়টা বৃথা যরবেন…।

১০। অধ্যবসায়ি হোনঃ


তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টিপস হচ্ছে ইচ্ছাশক্তি। আপনি যদি মন থেকে ফেইসবুকের আসক্তি দূর করতে চান এবং একে নিয়ন্ত্রন করতে চান তাহলে আপনি অবশ্যই পারবেন। চেষ্টা থাকলে মানুষ সব কিছুই পারে। শুধু দরকার হয় ইচ্ছাশক্তি। তাই আজই নিজের মন কে বলুন আপনি পারবেন ফেইসবুক এর আসক্তি থেকে নিজেকে মুক্ত করতে।

 

তবে ফেইসবুকে সময় দিলে শুধু ক্ষতিই হবে এমন না। বর্তমানে  ফেইসবুকে বিভিন্ন শিক্ষামূলক , সচেতনতা মূলক ,  খবরসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যায়। তাই নিজেক যতটা সম্ভব নিয়ন্ত্রনে রেখে ফেইসবুকে থাকতে হবে, যেন এর দ্বারা আপনার কোন ক্ষতি  না হয়। তাই আজ থেকেই চেষ্টা করে যান নিজেকে ফেইবুক থেকে নিয়ন্ত্রনে রাখতে। আপনি অবশ্যই পারবেন…।

আপনার মতামত ...