আইফোনের পুরনো মডেল স্লো!!

আইফোন ৮ চালু হওয়ার পর এই সপ্তাহে ইন্টারনেটে একটি কথাই ঘুরপাক খাচ্ছে,

“আইফোনের পুরনো হ্যান্ডসেটগুলো স্লো হয়ে গেছে।“

অনলাইনে এক প্রবন্ধে এই কথাও বলা হয়েছে,

“হার্ভার্ডের এক গবেষণায় পাওয়া যায়-অ্যাপল আইফোনের নতুন মডেল বের হলে পুরনো মডেলগুলো ইচ্ছাকৃত ভাবে স্লো করে দেয়, যাতে তাদের নতুন মডেলের বিক্রি বেড়ে যায়। এতে তাদের লাভের পরিমাণও বেড়ে যায়।“

যদিও এর সত্যতার কোন প্রমাণ এখনো পাওয়া যায়নি। তবুও এ ব্যাপারে জল্পনা-কল্পনার অবসান হয়নি। এই প্রবন্ধটি প্রায় ২,৭০,০০০ মানুষ শেয়ার করেছে।

হার্ভার্ডের গবেষোনায় দেখা যায় যে, যখনই কোন নতুন আইফোন ডিভাইস চালু হয় তখনি গুগলে “আইফোন স্লো” সংক্রান্ত সার্চ বেশি হয়। তাই মনে করা হচ্ছে, নতুন আইফোন মডেল বের হলেই পুরনো মডেলগুলো স্লো হয়ে যায়। যা আসলে একটি ভুয়া ধারণা ব্যতিত আর কিছুই না।

তবে প্রবন্ধের শেষে এও বলা হয়,

”এটি আসলে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক পিএইচডি ছাত্রের ব্যক্তিগত পরীক্ষা-নীরিক্ষার ফল ছিল। যা সে কোন প্রাতিষ্ঠানিক জার্নালে প্রকাশ করেনি। বরং এক সাংবাদিকের কাছে উল্লেখ করেছে। সেখান থেকে পুরো ইন্টারনেটে এটি ছড়িয়ে গেছে।“

তাই হার্ভার্ডের গবেষণাকে যদিও সত্য বলেই বিবেচনা করা হয়, তবুও এই ছাত্রের গবেষণার ব্যাপারে কোন প্রমান পাওয়া যায়নি বলে এই কথায় বিশ্বাস করাটাও যুক্তিযুক্ত নয়।

তবে কিছু মানুষের এসব কথা বিশ্বাস করার কারণ হতে পারে,

  • (১) অ্যাপল এমন কিছু নতুন সফটওয়্যার তৈরি করে যা পুরনো হ্যান্ডসেটে ব্যবহার করা যায়না।
  • (২) এমন কিছু এপ তৈরি করে যা পুরনো স্লো ফোনে ব্যবহারে সমস্যা দেখা দেয়।
  • (৩) নতুন আইফোন মডেল বের হলে কেউ পুরনো মডেলে আর আকর্ষণ খুঁজে পায়না ইত্যাদি।

তবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলো নিয়ে এমন কোন আফসোস সাধারণত অ্যানড্রয়েড ব্যবহারকারীদের হয়না। কারণ গুগল এ ব্যাপারে অনেক যত্নশীল। গুগল নিয়মিত সকল ফোনের অপারেটিং সিস্টেমগুলো আপডেট করে। যেই কারণে অ্যানড্রয়েড ব্যবহারকারীরা তাদের পুরনো ফোন নিয়েই সন্তুষ্ট থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.