ফাংশন কি’র কাজ

আমরা অনেকেই জানি ফাংশন কি” কাকে বলে, কিবোর্ডে এফ-১ থেকে এফ-১২ পর্যন্ত ১২টি চাবি বা কি দেখা যায়। এগুলোকে বলা হয় ফাংশন কি।
চলুন আজ জানা যাক এগুলোর কাজ সম্পর্কে…।।

০১। ফাংশন কি-১ (এফ-১)

কম্পিউটারে কাজ করতে গিয়ে কোনো সমস্যায় পড়লে এই কি এর দকার হয়। যেকোনো প্রোগ্রামের ক্ষেত্রে ফাংশন কি-১ চাপলেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে ‘হেল্প’ বা সাহায্য অপশনটি খুলে যাবে।

০২। ফাংশন কি-২ (এফ-২)

কোনো ফাইল বা ফোল্ডারকে ‘রিনেম’ করতে, অর্থাৎ পুনরায় নাম দেওয়ার ক্ষেত্রে ফাংশন কি-২ এর ব্যবহার হয়।

০৩। ফাংশন কি-৩ (এফ-৩)

চালু থাকা অ্যাপ্লিকেশনের সার্চ ফিচার  খুঁজে দেওয়ার কাজ হলো ফাংশন কি-৩।

 ০৪। ফাংশন কি-৪ (এফ-৪)

কিবোর্ডের অল্টার কির সঙ্গে ফাংশন কি-৪ চাপলেই চালু থাকা উইন্ডোটি বন্ধ হয়ে যাবে।

০৫। ফাংশন কি-৫ (এফ-৫)

ডেস্কটপ বা ল্যাপটপকে রিফ্রেশ বা রিলোড করতে ফাংশন কি-৫ই যথেষ্ট।

০৬। ফাংশন কি-৬ (এফ-৬)

মাউসের কার্সরকে সরাসরি অ্যাড্রেস বারে পৌঁছে দেওয়ার কাজ করে ফাংশন কি-৬ ।

০৭। ফাংশন কি-৭ (এফ-৭)

কম্পিউটারে লিখতে গিয়ে বানান ভুল? ব্যাকরণগত সমস্যা?এই সমস্যা দূর করবে ফাংশন কি-৭।

০৮। ফাংশন কি-৮ (এফ-৮)

কম্পিউটার চালু করার সময় বুট মেন্যুতে ঢোকার মাধ্যম হলো ফাংশন কি-৮ ।

০৯। ফাংশন কি-৯ (এফ-৯)

ফাংশন কি-৯-এর কাজ ২ টি। মাইক্রোসফট ওয়ার্ড ডকুমেন্টেকে রিফ্রেশ করার জন্য এবং মাইক্রোসফট আউটলুকে ই-মেইল আদান-প্রদানের জন্যও ফাংশন কি-৯-এর ব্যবহার করা যায়।

১০। ফাংশন কি-১০ (এফ-১০)

কম্পিউটারে মেন্যুবার খোলার অন্যতম সহজ উপায় হচ্ছে ফাংশন কি-১০। শুধু ফাংশন কি-১০ চাপলেই মেন্যুবার খোলা যাবে না। কিবোর্ডের শিফট বাটন চেপে ফাংশন কি-১০ চাপতে হবে।

১১। ফাংশন কি-১১ (এফ-১১)

কম্পিউটারকে ফুলস্ক্রিন বা পূর্ণ পর্দায় রূপান্তরিত করার সহজ উপায় ফাংশন কি-১১।

১২। ফাংশন কি-১২ (এফ-১২)

অভ্র সফটওয়্যার দ্রুত চালু করতেই ফাংশন কি-১২ ব্যবহার করা হয় না। কম্পিউটারে ‘সেভ অ্যাজ’ ডায়লগ বক্স চালু করে ফাংশন কি-১২।

আজ এই পর্যন্তই…আল্লাহ হাফেজ।

সাইফুল্লাহ নাহিদ

পড়তে ও জানতে ভালো লাগে…
টেকনোলজি সংক্রান্ত বিষয় হলে তো কথাই নেই..😊
সেই ভালো লাগা থেকেই একটুখানি জানানোর প্রচেষ্টা…
স্বপ্ন দেখি…
অনেক স্বপ্ন…
তাই দোয়া চাই সবার কাছে…

আপনার মতামত ...