স্মার্টফোন’র চার্জ রাখার কিছু নিয়ম

পৃথিবীর ইতিহাসে সর্বপ্রথম বাণিজ্যিক মুঠোফোনটি ছিল মটোরোলার DynaTAC 8000X। মোবাইলটিকে “দ্যা ব্রিক” নামে ডাকা হত। ১৯৮৪ সালে মাটিন কুপার  প্রথম মোবাইল আবিষ্কার করেন। যার দাম ছিল৩৯৯৫(ইউএসডি) যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৩,২৭৫৯০ টাকা।

কালের বিবর্তনে এখন মানুষের হাতে এখন এন্ড্রয়েড ফোন। এন্ড্রয়েড এর জনক হিসেবে ধরা হয় এন্ডি রুবিন কে। তবে তার সাথে আরো তিন জন মিলে এন্ড্রয়েড.ইংক নামের কোম্পানি টি প্রতিষ্ঠা করেন। তারা হলেন রিচ মাইনার্স, নিক সিয়ার্স ও ক্রিস হোয়াইট। তারা এন্ড্রয়েড কোম্পানি টি ২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠা করেন এবং ২০০৫ সালে Google তাদের থেকে কোম্পানি টি কিনে নেয় এবং তাদেরকে গুগলে চাকুরী করার সুযোগ দেয়।

জরুরি কাজের মুহূর্তে এসে প্রয়োজনীয় এই যন্ত্রটির ব্যাটারির চার্জ শেষ হয়ে গেলে কাজের যন্ত্রটি এক মুহূর্তেই অকেজো হয়ে যায় একদম। স্মার্ট মোবাইলের ব্যাটারির চার্জ খুব দ্রুত শেষ হয়ে যায় এবং অনেকসময় একদিনের বেশি একেবারেই থাকে না। এ জন্য কিছু নিয়ম মেনে চললে আশা করা যায় অতি জরুরী এই বস্তুটির চার্জ অনেকক্ষণ স্বাভাবিক এর তুলনায় অনেকক্ষণ ধরে রাখা যাবে। চলুন জানা যাক…।।


১। ব্যাকগ্রাউন্ড কোন অ্যাপস চালু না রাখাঃ-


ফেসবুক থেকে শুরু করে গুগল ম্যাপস কিংবা জি-মেইল সব প্রয়োজনীয় অ্যাপস ব্যবহারের মাধ্যমেই দিনের শুরুটা হয়। ব্যবহারের পরই সব অ্যাপস বন্ধ করে দিতে হবে। পুরোপুরিভাবে অ্যাপসগুলো বন্ধ না করলে ব্যাকগ্রাউন্ডে সেসব অ্যাপস চালু থাকে বিধায় ব্যাটারির চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যায়।


২। ব্যাকগ্রাউন্ড ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখাঃ-


মোবাইলের ব্রাইটনেস সর্বোচ্চ দেয়া থাকলে ব্যাটারির চার্জ অনেক বেশি দ্রুত শেষ হয়ে যায়। যে কারণে মোবাইল ফোনের ব্রাইটনেস বেশি দেয়া উচিত নয়।


৩। ভাইব্রেশন মোড বন্ধ রাখাঃ-


মোবাইল ফোন ভাইব্রেশন মোডে রাখা মোবাইল ফোনের ব্যাটারি দ্রুত শেষ হয়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ। দরকার ছাড়া ভাইব্রেশন মোডে না রাখাই কল্যাণকর।


৪। অটো-রোটেশন অপশন চালু না রাখাঃ-


অ্যাক্সেলেরোমিটার নামের একটি বিশেষ ধরনের সেন্সর অটো-রোটেশন এর জন্য ব্যবহৃত হয়। প্রয়োজন ছাড়া বাকি সময়ে এই অপশন বন্ধ করে রাখা প্রয়োজন। কারণ এর জন্য প্রচুর চার্জ ক্ষয় হয়।


৫। অটো টাইম আউট অপশন ব্যবহার করাঃ-


অটো টাইম আউট এর অপশন টা ১৫ সেকেন্ড বা ৩০ সেকেন্ড নির্ধারণ করে দিলে নির্ধারিত সময় পরে অটো স্ক্রিন বন্ধ হয়ে যাবে। এতে করে ব্যাটারি কম খরচ হয়।

আশা করা যায়,এই কয়েকটি ট্রিকস মেনে চললে শখের এন্ড্রয়েড ফোনটির চার্জ স্বাভাবিক এর তুলনায় দীর্ঘক্ষণ ধরে রাখা সম্ভব।

সাইফুল্লাহ নাহিদ

পড়তে ও জানতে ভালো লাগে…
টেকনোলজি সংক্রান্ত বিষয় হলে তো কথাই নেই..😊
সেই ভালো লাগা থেকেই একটুখানি জানানোর প্রচেষ্টা…
স্বপ্ন দেখি…
অনেক স্বপ্ন…
তাই দোয়া চাই সবার কাছে…

আপনার মতামত ...