ঢাকায় নতুন অ্যাপভিত্তিক সেবাদান প্রতিষ্ঠান ‘লেটস গো’

উইকিপিডিয়ার তথ্য অনুযায়ী, পৃথিবীর প্রায় ৫৩৬টিরও বেশি শহরে উবারের সেবা চালু আছে। ২০১৬ সালের ২২ নভেম্বর বাংলাদেশের ঢাকায় বিশ্বখ্যাত অ্যাপ-ভিত্তিক ট্যাক্সি সেবা নেটওয়ার্ক উবারের কার্যক্রম শুরু হয়।

এদিকে, ২০১৬ সালের নভেম্বরে ছোট একটি কলসেন্টার থেকে পাঠাওয়ের যাত্রা শুরু হয়।

উবার, পাঠাও, স্যাম, বাহন, ট্যাক্সিওয়ালা, মুভের  ধারাবাহিকতায় ঢাকায় এবার চালু হতে যাচ্ছে অ্যাপভিত্তিক যাত্রী পরিবহনসেবা “লেটস গো” অর্থাৎ চলো যাই। সম্প্রতি গ্রাহকদেরকে  পরীক্ষামূলকভাবে সেবা দিতে শুরু করেছে লেটস গো। জানা যায় যে, আগামী মাসের মাঝামাঝি নাগাদ বড় পরিসরে মোটরসাইকেল ও গাড়ির মাধ্যমে সেবাটি চালু হবে।

লেটস গোর উদ্যোক্তারা বলছেন,

বাজারে এখন এ ধরনের যত সেবা আছে, তার মধ্যে এই সেবা হবে সবচেয়ে সাশ্রয়ী। দিন-রাত সব সময় ভাড়া একই থাকবে। আবার সেবাটি যাতে মানসম্মত হয়, সেদিকেও থাকবে বিশেষ নজর। যাত্রী ও চালক দুজনের জন্যই থাকছে জীবনবিমা-সুবিধা।

সেবার মান নিয়ে গ্রাহক যাতে মতামত জানাতে পারেন, সে জন্য কল সেন্টারের সুবিধা রাখছে লেটস গো। এর কারণ, যাঁদের স্মার্টফোন নেই, তাঁরাও যেন এই সেবা নিতে পারেন। অর্থাৎ এই কল সেন্টারে ফোন করেও পরিবহনসেবা পাওয়া যাবে। নম্বর: ০১৮৮৫৫৫৫৫৫৫।

লেটস গো’র উদ্যোক্তারা বলেন,

 সেবাটির অ্যাপ তৈরিতে এক বছর সময় লেগেছে। চারজন তরুণ অ্যাপ ডেভেলপার লেটস গো অ্যাপটি তৈরি করেছেন। ইতিমধ্যেই এই সেবার জন্য মোটরসাইকেল ও গাড়ির চালক নিবন্ধনের কাজ শুরু হয়েছে। সেবার মান ঠিক রাখতে স্থায়ীভাবে নিজস্ব একদল চালকও নিয়োগ করা হয়েছে। তাঁরা পেশাদারভাবে শুধু লেটস গোর জন্যই গাড়ি চালাবেন।

জানা যায়, লেটস গোর মোটরসাইকেল-সেবার ভিত্তিভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ টাকা। আর প্রতি কিলোমিটার ১২ টাকা। মোটরগাড়ির ভিত্তিভাড়া ৫০ টাকা এবং প্রতি কিলোমিটার ২০ টাকা। প্রচারণার অংশ হিসেবে মোটরসাইকেলের ভাড়ায় বর্তমানে ‘ফোরটিনাইন’ ও ‘নাইনটিনাইন’ নামের দুটি বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে লেটস গো। এ সুবিধায় পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে যেকোনো দূরত্বে গেলে এখন সর্বোচ্চ ভাড়া নেওয়া হচ্ছে ৪৯ টাকা। আর পাঁচ কিলোমিটারের বেশি যেকোনো দূরত্বে ভাড়া পড়বে সর্বোচ্চ ৯৯ টাকা।
লেটস গোর সেবা নেওয়ার সময় যাত্রী বা চালক যদি দুর্ঘটনায় পড়েন, তাহলে সর্বোচ্চ তিন লাখ টাকা পর্যন্ত জীবনবিমা-সুবিধা পাওয়া যাবে। এ জন্য প্রাইম লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্লে স্টোরে ইতিমধ্যে লেটস গো অ্যাপটি আপলোড করা হয়েছে। গ্রাহকের অ্যাপটির নাম ‘লেটস গো প্যাসেঞ্জার’ ও চালকদের অ্যাপটির নাম ‘লেটস গো ড্রাইভার’।

সাইফুল্লাহ নাহিদ

পড়তে ও জানতে ভালো লাগে... টেকনোলজি সংক্রান্ত বিষয় হলে তো কথাই নেই..😊 সেই ভালো লাগা থেকেই একটুখানি জানানোর প্রচেষ্টা... স্বপ্ন দেখি... অনেক স্বপ্ন... তাই দোয়া চাই সবার কাছে...

আপনার মতামত ...