ওয়াইফাই রাউটার থাকুক নিজ নিয়ন্ত্রনে

আজকে আমরা খুব ইন্টেরেস্টিং কয়েকটি জিনিস শিখব। আমরা মাক্সিমামই ইন্টারনেট কানেকশনের জন্য tp link ওয়াইফাই রাউটার ব্যবহার করি। কিন্তু অনেকই সারাজীবন শুধু ব্যবহার করেই গেলাম। হয়ত এর কন্ট্রোল প্যানেক নিয়ে তেমন কিছুই জানি না। তাই, আজকে আমরা এই জনপ্রিয় ওয়াইফাই রাউটারের কন্ট্রোল প্যানেল এর কিছু চমতকার বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা করব।

যেমনঃ আপনার রাউটার দিয়ে যারা নেট চালাচ্ছে তাদের ব্যান্ডওয়িইথ আপনি কন্ট্রোল করবেন যে কে কত স্পিড পাবে,আপনি ঠি করে দিবেন যে আপনার রাউটার কতজন ইউসার ব্যবহার করতে পারবে, অনাকাঙ্খিত সব ইউসারকে ব্লক করুন, ব্যবহার করার জন্য শুধু মাত্র নির্দিষ্ট আইপি সেটা আপ করুন ইত্যাদি। চলুন শুরু করা যাক।
প্রথমেই আসি, আপনি কাকে কত স্পিড দিবেন সেটা সেট আপ করে নিন। প্রথমেই আপনার কন্ট্রোল প্যানলে লগইন করুন।
তারপর-
DHCP তে যান এবং DHCP Clients list এ ক্লিক করুন। এখানে এই মূর্হতে আপনার রাউটার দিয়ে কে কে নেট ব্রাঊজিং করছে,আপনি দেখতে পাবেন।

 

এবার নতুন একটি ট্যাপ ওপেন করুন আর পুনরায় লগইন করুন-

এবার একেবারে নিচ দেখুন একটি bandwidth control নামে কোন অপশন আছে কিনা। সেখানে ক্লিক করুন।এখন নিচে দুইটি অপশন পাবেন-

control settings ও rules list

সেখান থেকে rules list এ ক্লিক করুন। তারপর নিচে Add new তে ক্লিক করুন।

এখন আবার,প্রথম ট্যাবে ফিরে আসুন। এখান,থেকে যে ইউসারের নেট স্পিড আপনি কন্ট্রোল করতে চান, তার আইপি এড্রেস কপি করুন ও ২য় ট্যাবে ফিরে সে অই যে add new তে যে অপশনগুলা আছে সেখানে দেখুন IP range নামে একটি অপশন আছে। সেখানে অই কপি করা আইপি পেস্ট করুন। পাশের বক্সে কিছুই দিতে হবে না।নিচের port range ও protocol দুইটাই যেভাবে আছে সেভাবে রেখে দিন।
নিচে আসুন, আর egress bandwidth ও Ingress ব্যান্ডওয়িথ নামের যে দুটি অপশন আছে সেখানে আপনি লিখে দিন যে, অই ইউসার কত থেকে কত ব্যান্ডওয়িথ পাবে। আগের বক্সে সর্বনিম্ন ও পরে বক্সে সর্ব্বোচ্চ কত পাবে তা লিখুন।এখানে যত থেকে যত লিখবেন,সে তত থেকে তত kbps স্পিড পাবে। Then,save এ ক্লিক করুন।

এবার আসি কীভাবে আপনি একজন ইউসারকে permanently ব্লক করতে পারবেন।

এজন্য প্রথমেই আপনার কন্ট্রোল প্যানেলে লগইন করুন।
তারপর নিচের ছবির মতো access কন্ট্রোল এ যান। Enable internet access control এ টিক দিন ও সেভ করুন।

 

এবার নিচের Add new অপশনে ক্লিক করুন। এরকম দেখতে পাবেন।

এখানে, role name এ যার আইপি এড্রেস ব্লক করতে চান তার একটা নাম দিন।এটা তাকে চিনে রাখার জন্য।যেকোন কিছু হতে পারে।
Then, নীল টিক চিহ্ন নির্দেশিত Click here To Add New Host list এ ক্লিক করুন। এবার তিনটি অপশন পাবেন,

১ম এ,মোড অপশন এ “IP address” সিলেক্ট করুন।
২য়,এখানে যার আইপি এড্রেস ব্লক করতে চান তার একটা নাম দিন।এটা তাকে চিনে রাখার জন্য।যেকোন কিছু হতে পারে।
৩য় অপশনে,অই ইউসারের আইপি এড্রেস দিন।দুইটা বক্স দেখতে পাবেন,দুইটাতেই অই ইউসারের আইপি এড্রেস দিন। এবার সেভ করুন।
আপনার কাজ শেষ।

লেখা দুটি ভাল লাগলে ও টিপি লিঙ্ক রাউটার নিয়ে আরো জানতে ঘুরে আসতে পারেন আমাদের ওয়েবসাইট tp link router price in Bangladesh

এবার আসি ইন্টেরেস্টিং একটি ব্যাপার নিয়ে।আপনার ওয়াইফাই কেউ দেখতেই পাবে না।কানেক্ট করবে দূরের কথা।এজন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হলোঃ

  • Note: ব্যাপারটি রাউটার এর ব্যাপারে একেবাড়েই নতুন হলে না করাই উত্তম।এই পদ্বতি প্রয়োগ করার ফলে,যখন আপনি কোন কারনে আপনার পিসির কানেক্ট ডিসকানেক্ট করে দিবেন,তখন আপনিও দেখতে পাবেন না।সমস্যা দেখা দিলে নিজে না ঠিক করতে পারলে, ওয়াইফাই প্রোভাইডার অফিসে যোগাযোগ করতে পারেন।ওরাই ঠিক করে দিবে

যথারীতি লগইন করতে হবে।এবার wireless এ ক্লিক করেন।এবার

এই Enable SSID Broadcast এটাকে ডিসেবল করে দিন।মানে অইখান থেকে টিক তুলে দিন ও সেভ করুন।এবার নিচে দেখুন লাল রঙ্গের একটি ম্যাসের শো করছে।সেখানের click here এ ক্লিক করে আপনার রাউটারটাকে reboot দিতে হবে।reboot না দেওয়া পর্যন্ত কিন্তু এটা কাজ করবে না।
এবার ইতিপূর্বে আপনার রাউটারে যে যে লগইন করেছে শুধু তারাই কানেক্ট করার অপশন খুজে পাবে ।আর কেউ খুজেই পাবে না।

যদি এটি আবার পূর্বের মতো সবার জন্য উন্মুক্ত করতে চান তাহলে,আবার wireless এ গিয়ে Enable SSID Broadcast এনাবল করে দিতে হবে।যদি আবারাও reboot দিতে বলে।তাহলে আবারো reboot দিবেন।
আজকে পর্যন্তই রাখছি।অন্য কোনদিন না হয় ওয়াইফাই রাউটারের নতুন কোন কিছু নিয়ে হাজির হবো।
আমার সাথে কানেক্ট হতে পার ফেসবুকে
যাদের ওয়াইফাই রাউটার এর আরো advance ব্যহহার নিয়ে জানার আগ্রহ এখনো শেষ হয় নাই।তারা ডু মারতে পার Youtube এ।ইউটিউবে ওয়াইফাই রাউটার নিয়ে অনেক অনেক বাংলা ভিডিও সিরিজ পাবে।

Shawon Md

কাজ করছি ইন্টারনেটমার্কেটিং নিয়ে ও পাশাপাশি নামমাত্র পড়াশোনা করছি ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট কলেজে।বয়সে কিন্তু অনেক ছোট।মাত্র ১৯ এ পা দিব দিব।
ব্লগিং আমার কাছে যেন রাতারাতি নেশার বস্তু হয়ে গেছে।আর সেজন্যও এখানে আসা

আপনার মতামত ...