রন্ধনশিল্প থেকে আয় করার উপায় জানেন কি?

আপনি কি রান্না করতে ভালোবাসেন? আপনার রান্না করা খাবার খেয়ে সবাই বলে অসাধারন খেতে। যদি আপনি রান্না করতে ভালোবাসেন এবং আপনার রান্নার স্বাদ সবার মুখে লেগে থাকে। তাহলে কেন আপনি এটাকে পেশা হিসেবে নিচ্ছেন না। বর্তমান আধুনিক সময়ে বিভিন্ন ক্ষেত্র তৈরি হয়েছে আয়ের জন্য। যা আপনার সামান্য পরিশ্রম আপনাকে করে তুলতে পারে অসাধারন।বর্তমানে রান্না করার মাধ্যমে ঘরে থেকে মানুষ অর্থ উপার্জন করছে। বিভিন্ন প্লাটফর্ম তৈরি হয়েছে রান্নার মাধ্যমে আয় করার জন্য।

 

কিভাবে শুরু করবেন


আপনি যদি দেশিও খাবারের পাশাপাশি বিদেশি খাবার রান্না করতে পারেন। তাহলে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে রান্না তৈরি করে তা সেল করতে পারেন। আবার এলাকায় প্রচার করতে পারেন বা এলাকার দোকানে সেল করতে পারেন। এর জন্য আপনাকে ৫ থেকে ৮ হাজার টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। কিন্তু আপনি যদি অনলাইনে সেল করার ব্যবসা করতে চান তাহলে কি করবেন? অবশ্যই আমি বলবো আপনারা কিভাবে উদ্যোগ নিবেন। তার আগে জেনে নেই অনলাইন প্লাটফর্ম কিভাবে কাজ করছে।

অনলাইন প্লাটফর্ম


অনলাইন প্লাটফর্মের মাধ্যমে ঢাকা শহরের বিভিন্ন জায়গার মানুষ আপনার হাতের রান্না খেতে পারবে। তারজন্য প্রথমেই আপনাকে আপনার রান্নার রেসিপি এবং রান্নার ছবি অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোতে পোষ্ট করতে হবে। এই ছবি দেখে ভোজনপ্রিয় মানুষেরা আপনার খাবারের অর্ডার দিবে।আর আপনি রান্না করে পাঠাবেন। এখন মনে প্রশ্ন জাগতে পারে পাঠাবো কিভাবে! চিন্তার করার কিছু নেই যেই প্লাটফর্মের মাধ্যমে পাঠাতে চান সেই প্লাটফর্মের নিজস্ব ডেলিভারি ম্যান আছে তারা এসে আপনার রান্না করা খাবার ভোজন রসিকদের পাঠিয়ে দিবে। আর আপনি প্রতি মাসে আয় করে নিবেন।

কিভাবে করবেন


এবার আসা যাক আপনি কিভাবে করবেন আপনার রান্না সেল। আমাদের দেশে বর্তমানে বিভিন্ন অনলাইন প্লাটফর্ম চালু হয়েছে। যারা এভাবে ঘরের রান্না পৌঁছে দিচ্ছে

অফিস-আদালত থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে।

যেমন-হোমশেফ বিডিCookantsFoodtongCookups এধরনের প্লাটফর্ম গুলো তৈরি হয়েছে বাংলাদেশে। যার ফলে বিভিন্ন রাধুনী তাদের রান্নার জাদু দিয়ে প্রতি মাসে উপার্জন করছে।

রান্না পছন্দ তবে রান্না পারি না


অনেকেই আছেন রান্না যেমন পছন্দ করেন তেমনি ভোজন রসিকও বটে। তবে রান্না না পারার কারনে এই সাইটে উপার্জন করতে পারছে না। কিন্তু রান্না নিয়ে কাজ করতে চায়। তাদের জন্যও উপায় আছে।তারা চাইলেই বিভিন্ন দেশিও রেসিপি সেল করতে পারে। কিন্তু কোথায় সেল করবে তাও জানা থাকতে হবে। আপনি চাইলে আপওয়ার্ক,  Etsy বা ফিভারে একটি একাউন্ট খুলে নিন। এতে বিভিন্ন রেসিপি সেল করে ভালো উপার্জন করা যায়। তাছাড়া শুধুমাত্র রান্নার রেসিপি সেলের জন্য বিভিন্ন সাইট আছে। একটু গুগল করলেই জেনে যাবেন।রেসিপি সেল করার জন্য Taste of Home, Cuisine at Home,  Cooking for Engineers,  Better Recipes

কতটা আয় হবে


এই সাইট গুলোতে একবার রেসিপি সেল করতে পারলে আপনি একটি রেসিপির জন্য ১০ থেকে ২০ ডলার আয় করতে পারবেন। অর্থাৎ,আপনি একটি রেসিপি থেকে ৮০০ টাকা থেকে প্রায় ২ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। আপনার রেসিপি খুব বেশি ইউনিক যদি হয় এবং আপনার লেখার মধ্যে একজন পাঠকে যদি আকর্ষন করার ক্ষমতা থাকে তাহলে আপনি ৫০ ডলার থেকে ১০০ ডলার আয় করতে পারেন। তাহলে আপনি যদি মাসে ৫ টা রেসিপিও সেল করতে পারেন তাহলে আপনি মাসে প্রায় ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারছেন। তাহলে আর দেরি কেন রান্নাকে কাজে লাগান সাথে আয় করে নেন প্রতি মাসে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.