স্যামসাং প্লাস্টিক প্যাকেজিং বন্ধ করছে!

স্মার্টফোন প্যাকেজিং এর জন্য বেশির ভাগ স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানই কাগজ, কার্ড এবং প্লাস্টিক ব্যবহার করে থাকে, যেখানে পণ্যের বাইরে অযথা প্লাস্টিক ব্যবহার করার প্রয়োজনই নেই। তাই স্যামসাং এই বছর থেকে প্যাকেজিং প্লাস্টিক ব্যবহার করবে না। 

এই বিষয়ে স্যামসাং বলেছে,

২০৩০ সালের মধ্যে ৫০০,০০০ টন রিসাইকেল প্লাস্টিক এবং ৭৫ লক্ষ টন বাতিল পণ্য সংরক্ষণ করবে। এর ফলে পরিবেশ দূষণ কমে যাবে এবং প্লাস্টিকের সঠিক ব্যবহার সম্ভব হবে।

দক্ষিন কোরিয়ার প্রযুক্তি পন্য উৎপাদন প্রতিষ্ঠানটি হোম অ্যাপ্লায়েন্স থেকে শুরু করে প্রচুর হাতে বহন যোগ্য পন্য ও ওয়ারেবল(পরিধেয়) পন্য উৎপাদন করে। যার প্রত্যেকটিতে কম বেশি প্লাষ্টিক উপাদান থাকে।

এই প্রতিশ্রুতি থেকেই স্যামসাং এই বছরের শুরু থেকেই প্যাকেজিং এর জন্য রিসাইকেল/জৈব প্লাস্টিকের [বায়োপ্লাষ্টিক] ব্যবহার করবে।

রিসাইকেল প্লাষ্টিক সেই ধরনের প্লাষ্টিক যা ইতিমধ্যে উৎপাদিত, কিন্তু ব্যবহারযোগ্য, যেটা পড়ের থাকলে নদী নামা/সমুদ্র কিংবা পানির প্রবাহকে নষ্ট করে।

বায়োপ্লাষ্টিক হল গাছ-গাছালি কিংবা প্রানীকুল থেকে বর্জিত বর্জ্য যেমন, খাদ্য বর্জ্য, কাঠের টুকরা, ভুট্টার মাড়, কিংবা কৃষিজ পন্য। এগুলো এমনিতে বর্জিত কিংবা পরিত্যাক্ত হলেও খুব সহজে এগুলোকে কম শক্তি ব্যয়ে পুনঃব্যবহারযোগ্য।

চার্জিং প্লাগ এ আজকাল যে গ্লোসি প্লাষ্টিক দেখা যাচ্ছে সেটা ম্যাট ফিনিস দিয়ে স্থানান্তর হবে যা প্লাষ্টিকের প্রয়োজন কমাবে।

ইরফান

জানতে এবং জানাতে ভালোবাসি। তবে প্রযুক্তি নিয়ে জানার আগ্রহটা আরো বেশি তাই নিজে যা জানি তা তুলে ধরি টেকমাস্টার ব্লগে। প্রয়োজনে যোগাযোগঃ ফেসবুক টুইটার বিশেষ প্রয়োজেনে ইমেইল hi.mdirfan07@outlook.com

আপনার মতামত ...