ইউরোপের বাজারে হুয়াওয়ের দাপট

ইউরোপের বাজারে চাইনীজ স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রভাব দিন দিন বেড়ে চলছে। পুরো ইউরোপের ৩২% চাইনীজ স্মার্টফোনের দখলে আর হুয়াওয়ে একাই ২৩.৬%। 

ইউরোপের বাজারে খুব দ্রুতই বৃদ্ধি পাচ্ছে চাইনীজ স্মার্টফোনের বাজার। হুয়াওয়ের পাশাপাশি শাওমি, ওয়ান প্লাস, অপ্পোভিভো এই তালিকায় রয়েছে। এই সকল প্রতিষ্ঠানের বাজারও খুব দ্রুত বাড়ছে। তবে এই প্রতিযোগিতায় এগিয়ে রয়েছে শাওমি।

হুয়াওয়ের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কে অবনতি হয়েছে তারপরও তাদের বাজার দ্রুতই বৃদ্ধি পাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের বাজার বিভিন্ন বাধার ফলে ধরতে পারেনি হুয়াওয়ে কিন্তু ইউরোপের বাজার ঠিকই দাপটের সাথে ধরে নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

তবে ইউরোপের বাজারে প্রথম দুটি স্থানে রয়েছে স্যামসাং এবং অ্যাপল। স্যামসাং এর দখলে ২৮.৭% এবং অ্যাপলের দখলে ২৬% বাজার। তবে স্যামসাং ফোনের বিক্রি ২০১৭ সালের তুলনায় ২০১৮ সালে ১% কমছে। তেমনি অ্যাপলও খেয়েছে বড় ধরণের ধাক্কা তাদের বিক্রি কমেছে ৫.১%।

হুয়াওয়ে বাজার বেড়েছে ৫৫.৭%। তবে ইউরোপের বাজারে সব থেকে বেশি গতিতে বাড়ছে শাওমির বাজার, তাদের দখলে রয়েছে ৬%। ২০১৭ সালের তুলনায় ২০১৮ সালে শাওমির বাজার ৬২% বৃদ্ধি পেয়েছে।

নকিয়া ইউরোপের বাজারে নাজুক অবস্থায় রয়েছে, তাদের দখলে আছে ২.৪%। আগের থেকে বিক্রি ১৮.৩% কমেছে। অন্যান্য স্মার্টফোনের দখলে রয়েছে ১৩.৪% বাজার।

প্রতিবেদন থেকে বুঝা যাচ্ছে, ইউরোপের বাজারে রাজত্ব করতে যাচ্ছে চাইনীজ স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। তবে এই বাজারে হুয়াওয়ের পাশাপাশি শাওমির অগ্রগতি হবে সব থেকে বেশি।

এখন দেখা যাক ২০১৯ সালের শেষেই সব হিসাব বদলে দিবে চাইনীজ প্রতিষ্ঠানগুলো। তাদের রাজত্বেই চলে যাবে সব দেশের বাজার।

তথ্যঃ দ্যা ভার্জ 

ইরফান

জানতে এবং জানাতে ভালোবাসি। তবে প্রযুক্তি নিয়ে জানার আগ্রহটা আরো বেশি তাই নিজে যা জানি তা তুলে ধরি টেকমাস্টার ব্লগ এবং টেকি নাউ। প্রয়োজনে যোগাযোগঃ ফেসবুক টুইটার বিশেষ প্রয়োজেনে ইমেইল hi.mdirfan07@outlook.com

One thought on “ইউরোপের বাজারে হুয়াওয়ের দাপট

  • February 16, 2019 at 6:58 pm
    Permalink

    খুব ভালো ফোন। কথার সাথে কাজের হুবহু মিল আছে

    Reply

আপনার মতামত ...